Press "Enter" to skip to content

“বয়কট চায়না” ডাক বন্ধ করুক ভারতীয়রা, এতে দুই দেশের লাভ হবে: চাইনিজ মিডিয়া


প্রতি বছর দীপাবলী সামনে এলে একদিকে যেমন ভারতীয়রা উৎসাহিত থাকে, অন্যদিকে চীনের ব্যাবসায়ীরাও ভারতের () দিকে তাকিয়ে থাকে। এর মূল কারণ ভারতীয়দের দীপাবলী উদযাপনের দরুন চীন মোটা মুনাফা কামিয়ে নেয়। তবে এবারের দীপাবলীতে ভারতের মানুষজন বিরাট সাফল্য অর্জন করে দেখিয়েছে। আসলে এবারের দীপাবলীতে ‘বয়কট চায়না” প্রস্তাবকে ্তব রূপ দিয়েছে।

প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী এবারের দীপাবলীতে চীনের () ৫০ হাজার ক্ষতি হয়েছে। ভারতের এই সাফল্যের জন্য এবছরের দীপাবলীকে অনেকে আত্মনির্ভর দীপাবলি বলে আখ্যা দিয়েছেন। লক্ষণীয়, যতবার “বয়কট চায়না প্রোডাক্ট” এর ডাক উঠেছে ততবার ভারতীয়রা উৎসাহের সাথে তা করার চেষ্টা করেছে। যার ফলাফল এখন হাতেনাতে মিলতে শুরু হয়েছে।

ভারতীয়দের এই সাফল্যের পর চীনের সরকারি মিডিয়ার তরফে কিছু মন্তব্য সামনে এসেছে যা সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। ে বলা হয়েছে, ” ভারতের মধ্যে চীন বিরোধী কার্যকলাপ তীব্র। এটা শীঘ্রই বন্ধ করা উচিত এবং জয়েন করা উচিত।” যেহেতু ভারতীয়রা গণহারে চীনের প্রোডাক্ট বয়কট করা শুরু করেছে তাই চীনের মিডিয়া কান্নাকাটি করছে। চীনের সরকারি মিডিয়ার এক আর্টিকেলে বলা হয়েছে, যদি দুই দেশের ব্যাবসাকে বৃদ্ধি করতে হয় তাহলে “বয়কট চায়না” ডাক বন্ধ করতে হবে এবং বন্ধুসুলভ আচরণ করতে হবে।

জানিয়ে দি, ভারতের অর্থনীতি প্রতি বছর ফুলেফেঁপে উঠতে শুরু হয়েছে। এর মধ্যে বিশ্বের সমস্ত দেশ ভারতের সাথে ফ্রি ট্রেড চুক্তি স্বাক্ষরের চেষ্টায় লেগে পড়েছে। UK থেকে শুরু করে চীন সমস্ত দেশ ভারতের বাজারের লাভ নেওয়ার চেষ্টায় রয়েছে। এখন দেখার বিষয় এই যে ভারতের সরকার কিভাবে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখেন