Press "Enter" to skip to content

ভাইরাল ৭ বছর বয়সী রাশিয়ান বালিকা ক্রিস্টিনা! মুখস্ত হনুমান চল্লিশা থেকে শুরু করে গীতার শ্লোক

ভারত দেশ নিজের প্রাচীন ও আধ্যাত্মিক জ্ঞানের জন্য বিশ্বে সবথেকে বড়ো স্থানের অধিকারি। ভারতের ঋষি, মুনি ও সাধু সন্ন্যাসীরা বার বার জ্ঞানের আলোয় বিশ্বকে আলোকিত করেছে। ভারতের প্রতিটি কোনে সময়ে সময়ে মহান আত্মা জন্ম নিয়ে ভারতের সনাতন সংস্কৃতির বিকাশ করেছে। শ্রী রামকৃষ্ণ থেকে শুরু করে ঋষি অরবিন্দর মতো মহান শক্তি ভারতভুমিকে আধ্যাত্মিক দিক থেকে সমৃদ্ধশালী করেছে।

তবে লাগাতার বহু দশক ী শাসনের অধীনে থাকার দরুন এখনও গোলামী মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি হিন্দুরা। স্বাধীনতার এত বছর পরেও হিন্দুরা নিজের শিকড় তথা নিজের সংস্কৃতি থেকে নিজেদের দূরে রাখতে ব্যাস্ত। অন্যদিকে হিন্দু সংস্কৃতির প্রতি বিদেশীদের ঝুঁক পুরো বিশ্বকে অবাক করেই চলেছে। আসলে যত দিন যাচ্ছে হিন্দু সংস্কৃতির প্রতি , জার্মানি, মতো দেশের নাগরিকদের আকর্ষণ বৃদ্ধি হয়েই যাচ্ছে।

সম্প্রতি এক ৭ বছর বয়সী রাশিয়ান বালিকার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে রাশিয়ান বালিকাকে ঝড় করে সংস্কৃত শ্লোক বলতে দেখা যাচ্ছে। গায়েত্রী মন্ত্র থেকে শুরু করে হমুনান চল্লিশা সবই কণ্ঠস্থ তার। গৌতম খাট্টার নামের এক ইউটিউবার ওই রাশিয়ার বালিকার ভিডিও বানিয়েছেন। যার পর তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

ভিডিওতে ইউটিউবার রাশিয়ান বালিকাকে বেশকিছু প্রশ্ন জিজ্ঞাস করতে দেখা যাচ্ছে। যার উত্তরে ক্রিস্টিনা তার জীবন ও ধৰ্ম সম্পর্কে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করছে। ইউটিউবার ক্রিস্টিনাকে জিজ্ঞাসা করে যে সে ভারতে কি কি েছে? উত্তরে রাশিয়ান বালিকা বলে, আমি মন্ত্র, পূজা পাঠ, হারমোনিয়াম বাজানো শিখেছি। ইউটিউবার রাশিয়ান বালিকাকে মন্ত্র পাঠ করতে বললে তাও ঝড়ঝড় করে শুনিয়ে দেয় রাশিয়ান বালিকা।

রাশিয়ান বালিকার নাম ক্রিস্টিনা, সে বর্তমানে তার পরিবারের সাথে ভারতেই থাকে। লক্ষণীয় বিষয় যে রাশিয়ার বালিকা যেভাবে হিন্দুদের ধৰ্ম, সংস্কৃতি সম্পর্কে সচেতন তা সাধারণ কোনো ভারতীয় ঘরের হিন্দু ছেলে মেয়ে নয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে ভিডিওটি শেয়ার করে বলেছেন, আমরা নামেই হিন্দু আসল হিন্দু ক্রিস্টিনা। যে মাত্র ৭ বছর বয়স থেকে ধর্মের প্রতি এত নিষ্ঠাবান।