Press "Enter" to skip to content

ভ্যাকসিন নিয়ে বেনিয়মের মুখোশ খুলতেই RSS কর্মীকে প্রাণে মারার চেষ্টা কেরালায়

তিরুবনন্তপুরমঃ বামেদের স্বর্গরাজ্য কেরালায় মাঝে মাঝেই অমানবিকতার চরম প্রতিচ্ছবি ফুটে ওঠে। শিক্ষিত কেরালায় কর্মীদের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক আক্রমণ কোনো নতুন ঘটনা নয়। সম্প্রতি, ের নেদুমকান্দাম জেলায় একজন আরএসএস কর্মীর উপর সিপিএমের একদল গুণ্ডাবাহিনী হামলা চালিয়েছে। তার অপরাধ তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ওই অঞ্চলের ভ্যাকসিন সংক্রান্ত অনিয়মের একটি সংবাদ নিবন্ধ তুলে ধরেছিলেন।

১লা আগস্ট রাত ৯.৪৫ মিনিটে, সিপিএমের গুন্ডারা আরএসএস কর্মী থাইকেরি প্রকাশের রাস্তা আগলে ধরে যখন সে বাড়ি ফিরছিল। তার পথ আটকানোর পাশাপাশি সিপিএমের গুন্ডারা তার জিপের ওপর হামলা চালায় এবং উইন্ডশিল্ড ভেঙে দেয়। এরপর গুন্ডারা প্রকাশের মুখ ও হাতে ছুরি মারে।

এই ঘটনার ঠিক একদিন আগে, একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছিল যেখানে বলা হয়েছিল যে ভ্যাকসিন বিতরণে রাজনৈতিক লাভ দেখা হচ্ছে। ঘটনার সূত্রপাত ঘটে যখন একটি ৬০ বছরের ব্যক্তির ভ্যাকসিন টোকেনে নকল সিলছাপ দেখা যায়। ওই প্রতিবেদনে রাজনীতিবিদরা নিজেদের প্রচারের জন্য ভ্যাকসিন বিতরণকে রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করার অভিযোগ করা হয়েছে।ফেসবুকে ওই প্রতিবেদনটি পোস্ট করার পর থেকেই ওই অঞ্চলের বাসিন্দারা সিপিএমের সমালোচনা করতে শুরু করে।

কেরালায় বিজেপি এবং আরএসএস কর্মীদের বিরুদ্ধে সংগঠিত হিংসাত্মক ঘটনার সংখ্যা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। একমাত্র অবশিষ্ট কমিউনিস্ট ঘাঁটি হওয়ায়, এই রাজ্যে তাদের প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে হামলা নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে আরএসএস কর্মী নন্দু কৃষ্ণকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছিল। এছাড়াও, এসডিপিআই গুন্ডাদের দ্বারা আরও তিনজন আহত হয়েছে।

গত কয়েক বছর ধরে, কেরালা রাজনৈতিক স্পেকট্ের উভয় দিক থেকেই কর্মী এবং সমর্থকদের নিয়ে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা দেখেছে, বহুবার নির্মমভাবে। ইসলামপন্থী সংগঠনগুলো এই অঞ্চলে রাজত্ব শুরু করার পর থেকেই পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। ইসলামের বাড়বাড়ন্তে কারণে কেরালার অনেক শিক্ষিত যুবকও আইএসআইএস -এ যোগ দিয়েছিল বলে তথ্য পাওয়া গিয়েছে।