Press "Enter" to skip to content

মধুর প্রতিশোধ! ISIS ঘাঁটিতে এয়ার স্ট্রাইক করল আমেরিকা, বড়সড় ক্ষতি জেহাদিদের


নয়া আমেরিকার ISIS-র আস্তানায় (US Air Strike On ISIS) করেছে। ড্রোন দিয়ে পূর্ব আফগানিস্তানে ঠিকানায় হামলা করে মার্কিন সেনা। হামলার ( Blast) প্রতিশোধ নিতেই এই পদক্ষেপ নেয় আমেরিকা। উল্লেখ্য, শুক্রবার মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন ঘোষণা করেছিলেন যে, কাবুল হামলায় যারা দায়ী তাঁদের ক্ষমা করা হবে না, তাঁদের খুঁজে বের করে শাস্তি দেওয়া হবে। ওনার এই হুঁশিয়ারির ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই জঙ্গি আস্তানায় হামলা চালাল মার্কিন সেনা।

শোনা যাচ্ছে যে, মার্কিন সেনার এই ড্রোন হামলায় ইসলামিক ষ্টেট জঙ্গি সংগঠনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কাবুল এয়ারপোর্টে হামলার ৩৬ ঘণ্টার মধ্যেই মার্কিন সেনা প্রতিশোধ নেয়। আইসিস খোরাসানের ঘাঁটি লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালায় মার্কিন সেনা।

মার্কিন সেনার মুখপাত্র বিল আর্বান জানিয়েছেন, আফগানিস্তানের নাঙ্গারহার প্রান্তে আইসিস খোরাসানের আস্তানাকে লক্ষ্য করে সেনা এয়ার স্ট্রাইক করেছে। ইঙ্গিত মিলেছে যে, আমরা লক্ষ্য ভেদ করতে সক্ষম হয়েছি। এই হামলায় কোনও সাধারণ মানুষের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

বলে দিই, বৃহস্পতিবার কাবুল এয়ারপোর্টে হওয়া পরপর হামলায় ১৩ জন মার্কিন সেনা কর্মী সহ ১০০ জনের উপরে মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। এই হামলার দায়িত্ব আইসিস খোরাসান নিজের কাঁধে নেয়। এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হামলাকারীদের শাস্তি দেওয়ার ঘোষণা করেন। পাশাপাশি এয়ারপোর্টের সুরক্ষাও বাড়িয়ে দেওয়া হয়। এছাড়াও এরকম হামলা আরও হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে বিভিন্ন ইন্টেলিজেন্স বিভাগের পক্ষ থেকে। আর এরপরই মার্কিন সেনা প্রতিশোধ নিতে জঙ্গিদের উপর এয়ার স্ট্রাইক চালায়।