Press "Enter" to skip to content

মহাঅষ্টমীর পুজোর পর মা দুর্গার মূর্তি ভাঙচুর! পাকিস্তানের হিন্দুদের করুন দশা


একদিকে হিন্দুরা যখন পুরো বিশ্বজুড়ে মা দুর্গার পুজোর উৎসবে মেতেছে তখন অন্যদিকে ে আবারও মৌলবাদীদের উপদ্রব শুরু হয়েছে। ের সিন্ধু প্রদেশ নাগপাড়কের এলকায় মা দুর্গার প্রাচীন মূর্তিকে ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হয়েছে। ি সাংবাদিক নায়লা ইনায়েল মা দুর্গার ভাঙা মূর্তির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

পাক সাংবাদিক পাকিস্তানের হিন্দুদের নরকীয় অবস্থা সম্পর্কে বলেছেন। নায়লা ইনায়েল জানিয়েছেন পাকিস্তানে হিন্দুদের কতটা দুর্দশার মধ্যে জীবন যাপন করতে হয়। নায়লা বলেছেন, নবরাত্রির পুজোর পর এই ঘটনাকে ঘটানো হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায় কতটা ভয়ভীতি হয়ে জীবনযাপন করে তার প্ৰমান এই ঘটনা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছে।

ঘটনা মহাঅষ্টমীর দিন হয়েছে এবং পুলিশ এখনও অবধি দোষীদের গ্রেফতার করেনি। যদিও পাকিস্তানে বেশিরভাগ উপদ্রব পুলিশ প্রশাসনের ছত্রছায়াতে হয়ে থাকে। মহা অষ্টমীকে দুর্গাপূজার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ দিন বলে ধরা হয়। আর এই দিনেই কট্টরপন্থীরা মা দুর্গার মূর্তি ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

পাকিস্তানের এই প্রাচীন দুর্গামন্দিরটি থারপারকার জেলায় অবস্থিত। পাকিস্তানের এই ঘটনা নিয়ে হিন্দুরা আক্রোশ প্রকাশ করছে। ভারতের মানুষ পাকিস্তানে লাগাতার হওয়া ঘটনা নিয়ে বার বার প্রতিবাদ জানিয়ে এসেছে। তা সত্বেও পুজোর দিন এমন ঘটনা সকলকে আঘাত দিয়েছে। এই ঘটনা নিয়ে ভারত, বাংলাদেশের হিন্দুরা প্রতিবাদে মুখর হয়েছে। চাপে পড়ে পাকিস্তানের প্রশাসন দোষীদের গ্রেফতার করার কথা বলেছে। যদিও অপরাধীরা শাস্তি পাবে কিনা তা নিয়ে হিন্দুরা সন্দেহ প্রকাশ করছে।

মহাঅষ্টমীর পুজোর পর মা দুর্গার মূর্তি ভাঙচুর! পাকিস্তানের হিন্দুদের করুন দশা


একদিকে হিন্দুরা যখন পুরো বিশ্বজুড়ে মা দুর্গার পুজোর উৎসবে মেতেছে তখন অন্যদিকে ে আবারও মৌলবাদীদের উপদ্রব শুরু হয়েছে। ের সিন্ধু প্রদেশ নাগপাড়কের এলকায় মা দুর্গার প্রাচীন মূর্তিকে ভেঙে চুরমার করে দেওয়া হয়েছে। ি সাংবাদিক নায়লা ইনায়েল মা দুর্গার ভাঙা মূর্তির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন।

পাক সাংবাদিক পাকিস্তানের হিন্দুদের নরকীয় অবস্থা সম্পর্কে বলেছেন। নায়লা ইনায়েল জানিয়েছেন পাকিস্তানে হিন্দুদের কতটা দুর্দশার মধ্যে জীবন যাপন করতে হয়। নায়লা বলেছেন, নবরাত্রির পুজোর পর এই ঘটনাকে ঘটানো হয়েছে। হিন্দু সম্প্রদায় কতটা ভয়ভীতি হয়ে জীবনযাপন করে তার প্ৰমান এই ঘটনা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছে।

ঘটনা মহাঅষ্টমীর দিন হয়েছে এবং পুলিশ এখনও অবধি দোষীদের গ্রেফতার করেনি। যদিও পাকিস্তানে বেশিরভাগ উপদ্রব পুলিশ প্রশাসনের ছত্রছায়াতে হয়ে থাকে। মহা অষ্টমীকে দুর্গাপূজার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ দিন বলে ধরা হয়। আর এই দিনেই কট্টরপন্থীরা মা দুর্গার মূর্তি ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

পাকিস্তানের এই প্রাচীন দুর্গামন্দিরটি থারপারকার জেলায় অবস্থিত। পাকিস্তানের এই ঘটনা নিয়ে হিন্দুরা আক্রোশ প্রকাশ করছে। ভারতের মানুষ পাকিস্তানে লাগাতার হওয়া ঘটনা নিয়ে বার বার প্রতিবাদ জানিয়ে এসেছে। তা সত্বেও পুজোর দিন এমন ঘটনা সকলকে আঘাত দিয়েছে। এই ঘটনা নিয়ে ভারত, বাংলাদেশের হিন্দুরা প্রতিবাদে মুখর হয়েছে। চাপে পড়ে পাকিস্তানের প্রশাসন দোষীদের গ্রেফতার করার কথা বলেছে। যদিও অপরাধীরা শাস্তি পাবে কিনা তা নিয়ে হিন্দুরা সন্দেহ প্রকাশ করছে।