Press "Enter" to skip to content

মহাবিপাকে চীন! আরও একটি চাইনিজ সামগ্রীর আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করল ভারত

নয়া দিল্লীঃ বৃহস্পতিবার () রঙিন টিভির () আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করল। ভারতের () এই সিদ্ধান্তে বড়সড় ক্ষতির সন্মুখিন চীন ()। এবং এই সিদ্ধান্তের ফলে ‘আত্মনির্ভর ভারত” গড়ার লক্ষ্যে আরও একটি বড় পদক্ষেপ সরকারের। বিদেশ বাণিজ্য মহানির্দেশালয় একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ‘রঙিন টিভি আমদানির নীতিতে সংশোধন করা হয়েছে। রঙিন টিভির আমদানি নীতি মুক্ত থেকে হটিয়ে নিষিদ্ধ শ্রেণীতে আনা হয়েছে।”

কোন সামগ্রীকে নিষিদ্ধ শ্রেণীতে রাখার মানে হল, সেই সামগ্রী আমদানি করার ব্যবসায়ীকে বাণিজ্য মন্ত্রালয়ের অধীনে থাকা বিদেশ বাণিজ্য মহানির্দেশালয় থেকে আমদানি লাইসেন্স হাসিল করতে হবে। আপনাদের জানিয়ে দিই যে, চীন থেকে প্রচুর পরিমাণে রঙিন টিভি আমদানি করা হয়। আর ভারতে চীনই রঙিন তিভি সাপ্লাইয়ের সবথেকে বড় দেশ। চীনের পর ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, হংকং, কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড আর জার্মানির মতো দেশ আছে।

একদিনে চীনের সাথে ভারতের সীমান্ত বিয়ে বিবাদ চলছে, আরেকদিকে ভারত প্রতিটি ক্ষেত্রেই চীনের উপ ব্যাপক ভাবে চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছে। সরকারি কেনাকাটিতে সরকার চীনের কোম্পানি গুলোর উপর আগেই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। কেন্দ্র আর রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কোন প্রোজেক্টেই আর চীনের কোম্পানি গুলোকে নতুন করে নেওয়া হচ্ছে না। এছাড়াও পুরনো প্রোজেক্ট গুলো থেকেই চীনের কোম্পানি গুলোকে ছাঁটাই করা হচ্ছে। এমনকি সরকার এও জানিয়ে দিয়েছে যে, কোন চীনের কোম্পানিই আর ভারতে কোন টেন্ডারে অংশ নিতে পারবে না।

এর আগে ডেটা সুরক্ষার কারণ দেখিয়ে ভারত সরকার চীনের ৫৯ টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছিল। এরপর দুদিন আগেই ভারত আবারও চীনের ৪৭ টি অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এবং আরও ২৫৭ টি চীনের অ্যাপকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছে। ভারত সরকারের এই পদক্ষেপে বড়সড় ঝটকা খেয়েছে চীন। এবং তাঁরা এই ক্ষতির কথা স্বীকারও করে নিয়েছে।