Press "Enter" to skip to content

‘মাকে বলে দিও আমি মুখ্যমন্ত্রী হব”, ছাত্রাবস্থায় প্রেমিকার কাছে ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন হিমন্ত


গুয়াহাটিঃ২২ বছরের আর ১৭ বছরের কিশোরী। একদিন কিশোরী তাঁর ২২ বছরের প্রেমিককে জিজ্ঞাসা করল, তোমার ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি মা-কে কি বলব? তখন ২২ বছরের যুবক কিছু না ভেবেই বলে দিল … ‘মা কে বলে দিও আমি একদিন মুখ্যমন্ত্রী হব”। এটা কোনও সিনেমার গল্প নয়, এটা সম্পূর্ণ ্তব। অসমের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা কয়েক দশক আগে নিজের প্রেমিকা রিনিকি ভুয়ান কে এই কথা বলেছিলেন। আজ সেই রিনিকই হিমন্তর অর্ধাঙ্গিনী। আর হিমন্ত এখন অসমের মুখ্যমন্ত্রী।

হিমন্ত তখন কলেজ ছাত্র ছিল। ওনার স্ত্রী রিনিকি জানান, কলেজ থেকে হিমন্ত মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখত। তিনি বলেন, হিমন্ত ছাত্র জীবন থেকেই নিজের লক্ষ্য নিয়ে স্থির ছিল আর সে এটাও ঠিক করে নিয়েছিল যে সে কি হবে। বলে দিই, সোমবার হিমন্ত বিশ্ব শর্মা অসমের ১৫তম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন।

রিনিকি বলেন, ‘আমি ১৭ বছরের ছিলাম আর হিমন্ত ২২ বছরের। তখনই আমাদের প্রথম সাক্ষাৎ হয়। আমি ওকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে, আমি আমার মায়ের কাছে ওঁর ভবিষ্যৎ নিয়ে কি বলব? তখন হিমন্ত আমাকে সপাটে জবাব দিয়েছিল, ‘আমি অসমের মুখ্যমন্ত্রী হব।” সেই সময় আমি অবাক হয়েছিলাম ঠিকই, কিন্তু পরে বুঝতে পারি যে আমি যাকে বিয়ে করতে চাই তাঁর রাজ্য নিয়ে একটি নিশ্চিত লক্ষ্য আর স্বপ্ন আছে। ও পাথরের মতো প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।”

রিনিকি বলেন, ‘যখন আমাদের বিয়ে হয়, তখন হিমন্ত শুধুমাত্র একজন বিধায়ক ছিল। এরপর মন্ত্রী হয় আর রাজনীতিতে এগিয়ে চলে। আর এখন ও অসমের মুখ্যমন্ত্রী। ওকে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে দেখে আমি নিজের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারছিলাম না।” রিনিকি বলেন, ‘রবিবার রাতে আমার সঙ্গে ওঁর কথা হয়। তখন ও দলের তরফ থেকে মুখ্যমন্ত্রী কাকে বানানো হচ্ছে সেটার কথা বলে। আমি ওকে জিজ্ঞাসা করি কে হচ্ছে? তখন ও বলে আমি।”

রিনিকি বলেন, ‘ও আমার জন্য সবসময় একজন সাধারণ স্বামী হিসেবেই থাকবে। আমি ওঁর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীত্বকে জড়াব না। ওঁর নতুন পদ নিয়ে আমার মানিয়ে নিতে কিছু সময় লাগবে।” বলে দিই, অসমের নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রীর দুটি সন্তান আছে। একটির বয়স ১৯ আর একটির ১৭।