Press "Enter" to skip to content

মোদীযুগে আন্তর্জাতিক মহলে ভারত কিভাবে সামঞ্জস্য বজায় রাখছে তা দারুনভাবে বোঝালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

রাষ্ট্রমন্ডল প্রমুখ দেশগুলির উদেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র বলেন, বিশ্ব বর্তমানে ভারতকে এবং ভারতবাসীকে একটা অন্য নজরে দেখেন। বর্তমানে আন্তর্জাতিক মহলে ভারতবাসীদের গৌরব অনেকে বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন ভারত এখন কোনো দেশের চাপের মধ্যে থাকে না, ভারত নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নেয়।

 

ভারত এখন পশ্চিমি দেশগুলির সাথে সাথে সৌদি এবং মধ্যপূর্ব এর দেশগুলির সাথে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখছে।লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী ‘ভারত কি বাত সাবেকি সাথ’ কার্যক্রমে বলেন , বর্তমানে ভারতের ের ক্ষমতা অনেক বেড়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী লন্ডনের হলে উপস্থিত ভারতীয়দের উদ্যেশে বলেন, “আপনারা হয়তো লক্ষ করেছেন আপনাদের পাসপোর্টের শক্তি এখন অনেক বেড়ে গেছে। এখণ অনান্য দেশের লোকজন ভারতীয়দেরকে অত্যন্ত গর্বের চোখে দেখেন।” প্রবাসী যা অত্যন্ত আনন্দের সাথে সাড়া দিয়ে মোদীজিকে সমর্থন করেন।

প্রবাসী ভারতীয়দের সম্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী বলেন সৌদি আরব, ইরানের মতো দেশের সাথে সাথে ও ফিলিস্তিনের সাথেও ভালো সম্পর্ক রাখা উচিত।

উনি বলেন, “ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এই ক্ষমতা থাকা উচিত যখন তিনি ইজরায়েল যাবেন তখন কেন কোনো সংকোচ বোধ হয় একই সাথে যখন তিনি ফিলিস্তিন যাবেন তখনও নিজের ইচ্ছায় যেতে পারবেন।”

 

অর্থৎ প্রধানমন্ত্রী বুঝিয়ে দেন, অন্য কোনো দেশের পক্ষ নিয়ে ভারত চলবে না ভারত নিজে যা ভালো বুঝবে সেটা করবে। কোনো দেশ যাবেন কোনো দেশ যাবেন না এই বিষয়ে যাতে কোন দেশ ভারতের উপর চাপ সৃষ্টি করতে না পারে সেইভাবে চলবে ভারত।

আপনাদের জানিয়ে রাখি ভারতের আগের প্রধানমন্ত্রীরা কোন দেশে যাবেন এই নিয়ে অন্য দেশের দিক থেকে বিবেচনা করতো অর্থাৎ অন্য দেশের একটা পরোক্ষ চাপ থাকতো কিন্তু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভারতের এমন প্রথম প্রধানমন্ত্রী যিনি ইজরায়েল এবং ফিলিস্তিন দুই দেশেই গিয়েছেন।

এই বিষয়ে বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি ইজরায়েলও যাবো এবং একই সাথে ফিলিস্তিনও যাবো। আমি সৌদি আরবের সাথে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখবো এবং ভারতীয়দের জ্বালানির প্রয়োজন হলে ইরানও যাবো।”

আসলে ভারতকে বিশ্বে শ্রেষ্ঠ স্থান পেতে হলে এই আন্তর্জাতিক বিষয়গুলির উপর ভারতের নজর দেওয়া যে খুবই জুরুরি তা বুঝিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

 

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.