Press "Enter" to skip to content

মোদীর স্বপ্নের প্রকল্পে উড়ান, করোনার পরিস্থিতির মধ্যেও বড় বাধা পার করল বুলেট ট্রেন প্রোজেক্ট

নয়া দিল্লীঃ দেশের প্রথম বুলেট ট্রেন নিয়ে যথেষ্ট ঔৎসুক্য ছিল ভারতে। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এই কাজে জোর দিয়েছিল । জানা গিয়েছিল দেশের প্রথম বুলেট ট্রেন চলবে মুম্বাই থেকে আমেদাবাদ। কেমন চলছে সেই কাজ? মোদীর স্বপ্নই বা কতটা সাফল্যের পথে? জানা গিয়েছে করোনার মার সত্ত্বেও বেশ দ্রুত গতিতেই কাজ এগিয়ে চলেছে গুজরাটে।

যদিও যথেষ্ট সমস্যা ছিল করোনায় মজদুর কমে যাওয়া এবং তারপর লাগাতার বৃষ্টির কারণে। তবে ন্যাশনাল হাই স্পিড কর্পোরেশন লিমিটেডের মতে, বাধার সম্মুখীন হলেও কাজ থেমে থাকেনি। ইতিমধ্যেই গুজরাটে স্তম্ভ বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে এই স্তম্ভগুলি প্রায় ১৩ মিটার উঁচু, সহজ ভাষায় বলতে গেলে চারতলা বাড়ির সমান। দ্রুতগতির এই বুলেট ট্রেন মুম্বাই থেকে আমেদাবাদ অবধি মোট বারোটি স্টেশনে দাঁড়াবে। ন্যাশনাল হাই স্পিড রেল কর্পোরেশন লিমিটেডের আশা ২০২৩ সালের মধ্যেই সম্পন্ন হবে বাকি কাজ।

যদিও গুজরাটে দ্রুতগতিতে এই কাজ চললেও বুলেট ট্রেন লাগু করার কাজে এখনও যথেষ্ট পিছিয়ে রয়েছে । এখনও জমি অধিগ্রহণের কাজও শুরু হয়নি। যার জেরে আগামী পর্বে সমস্যায় পরতে পারে এই প্রকল্প। যদিও রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণবের গুরুত্বপূর্ণ কাজের তালিকার প্রথম দিকেই রয়েছে এই বুলেট ট্রেন প্রকল্প। তাই কাজ দ্রুত গতিতে শেষ করতে রীতিমতো বদ্ধপরিকর কেন্দ্র সরকার।

মহারাষ্ট্র, দাদরা, নগর হাভেলি হয়ে গুজরাটে পৌঁছাবে এই ট্রেন। এখন সেই ড্রিম প্রজেক্টকে সফল করতে রীতিমতো উদ্যমী সরকার। যদিও শেষ পর্যন্ত কবে এই প্রজেক্ট সফল হয় সেদিকে নজর থাকবে সকলের।