Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকারের কামাল, প্রথম ত্রৈমাসিক অর্থবর্ষে ভারতের GDP বাড়ল ২০.১০%

নয়া  ে অর্থব্যবস্থা বর্তমান হালত ঠিক কি? তা জানতে সবচেয়ে বড় উপায় হল GDP পরিসংখ্যান। করোনাকালে ভারতের জিডিপি গ্রোথ রেট মারাত্মকভাবে পড়ে গিয়েছিল। যার জেরে অর্থনীতির বেহাল দশা এবং কঙ্কালসার চেহারা উঠে এসেছিল সকলের সামনে। এবার অন্তত কিছুটা আশার খবর রয়েছে মোদী ের জন্য। জিডিপির ক্ষেত্রে অন্তত ভালো কামব্যাক করছে ভারত।

কেন্দ্র সরকার সুত্রে প্রাপ্ত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি অর্থবর্ষের প্রথম তিন মাসে ভালো কামব্যাক করেছে ভারত। জিডিপি গ্রোথ রেট ২০.১%। মনে রাখতে হবে গত বছর এই সময় ভারতের জিডিপি গ্রোথ রেট ছিল -২৩.৯%। সাধারণত জিডিপির পরিসংখ্যান তৈরি করা হয় প্রতিবছর অনুসারে। তবে ভারতে ত্রৈমাসিক জিডিপি গ্রোথ রেট প্রকাশিত হয়। সেই সূত্র ধরেই, সামনে এসেছে এই পরিসংখ্যান।

অর্থনৈতিক বেহালদশা কাটিয়ে ধীরে ধীরে ফের একবার স্বাভাবিক হচ্ছে জনজীবন, আর তারই প্রভাব পড়েছে জিডিপিতেও। এর আগে, এসবিআইয়ের ইকোরাপ রিসার্চ রিপোর্টে অনুমান করা হয়েছিল যে চলতি আর্থিক বছরের প্রথম তিনমাসে দেশের জিডিপি ১৮.৫ শতাংশ হারে ি পেতে পারে। আদতে দেখা গেল গ্রোথ রেট তার থেকেও বেশ কিছুটা বেশি। অর্থাৎ অর্থনীতির এই ভেঙেপড়া পরিস্থিতি যে ধীরে ধীরে শোধরাচ্ছে তা বলাই বাহুল্য। জিডিপি হল কোন দেশের সামগ্রিক উৎপাদিত পণ্য এবং পরিষেবার মোট বাজার মূল্য।

জিডিপির উত্থানের কারণে আগামী দিনে প্রভাব পড়বে সমস্ত ক্ষেত্রেই। কমবে বেকারত্ব, ফের একবার ফিরে আসবে জনজীবন স্বাভাবিক ছন্দ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর প্রথম তিন মাসে জিডিপি গ্রোথ রেট ২৩.৯% পতনের পর পরবর্তী তিন মাসেও পতনের ধারা ছিল অব্যাহত। সেসময় জিডিপি গ্রোথ রেটের পতন হয়েছিল ৭.৫%। পরবর্তী তিন মাসে ০.৪% এবং শেষ ত্রৈমাসিকে ১.৬% পতনের কারণে বছর শেষে ভারতের জিডিপি গ্রোথ রেট দাঁড়িয়েছিল -৭.৩% এ। যা বর্তমানে দ্রুতগতিতে কাম ব্যাক করছে।