Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকার শরিয়ত আইন মানছে না বলেই দেশে মহামারী আর ঘূর্ণিঝড়! বললেন উত্তর প্রদেশের সাংসদ

মুরাদাবাদঃ উত্তর প্রদেশের মুরাদাবাদ থেকে সমাজবাদী পার্টির ডঃ এসটি হাসানের নতুন একটি বক্তব্য চর্চার বিষয়ে হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি করোনার সংক্রমণ আর বিগত কয়েকদিনে দেশে আশা ঘূর্ণিঝড়ের জন্য মোদী সরকারকে দায়ী করেছেন, তিনি বলেছেন মোদী সরকার শরিয়ত আইনে দখল দিচ্ছে বলেই এসব হচ্ছে দেশে।

সমাজবাদী পার্টির সাংসদ এসটি হাসান বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন, ‘বিগত ৭ বছরে বিজেপির সরকার দ্বারা দেশে এমন আইন বানানো হয়েছে যেগুলো শরিয়ত আইনে দখলদারি করছে। নাগরিকতা আইন বানানো হয়েছে, সেই আইনে মুসলিম বাদে সবাই নাগরিকতা পাচ্ছে। এসব আইনের ফলে দেশে ঘূর্ণিঝড় হচ্ছে করোনা মহামারী এসেছে। দেশের কোটি কোটি মানুষ প্রভাবিত হয়েছেন।”

ডঃ হাসান বলেন, ‘সিএএ আর আইনের মাধ্যমে দেশের মুসলিমদের নিশানা করা হচ্ছে। সরকার ধার্মিক বৈষম্য সৃষ্টি করার আইন আনছে।” হাসান বলেন, যখন মাটিতে থাকা মানুষরা অন্যায় করে, তখন আকাশ থেকে বিচার করা হয়। আকাশ থেকে বিচার হলে ‘যদি আর কিন্তু” বলে কিছু থাকেনা।” হাসান এও বলেন যে, বিজেপি সরকারে গরিবদের অধিকার দেওয়া হচ্ছে না। সরকারে শুধু বড়লোক মানুষরাই অধিকার পাচ্ছে। হাসান আরও বলেন, সরকার যেভাবে কাজ করছে আগামী দিনে দেশে আরও বড়সড় বিপর্যয় আসবে।

SP MP Hasan.

এর আগে সমাজবাদী পার্টির সাংসদ এসটি হাসান রাম ের চাঁদা সংগ্রহ অভিযান নিয়ে বলেছিলেন, ‘বিজেপি ের জন্য চাঁদা জমা করা মানুষদের উপর পাথর ছোঁড়াচ্ছে আর মুসলিমদের দোষ দিচ্ছে।” তিন তালাক রদ বিলের বিরোধিতা করে এসটি হাসান বলেছিলেন, ‘বৌকে গুলি মারা অথবা জ্বালিয়ে মারার বদলে তিন তালাক দেওয়া ভালো।”