Press "Enter" to skip to content

‘যারা অযোগ্য তাঁরাই ধরনায় বসে!” পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাণী উল্লেখ করে মমতাকে কটাক্ষ শুভেন্দুর



কলকাতাঃ সোমবার রাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। আর সেই নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে মঙ্গলবার দুপুর থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গান্ধী মূর্তির পাদদেশে ধরনায় বসেছিলেন। সেখানে তিনি গলায় গামছা দিয়ে মুখে কালো মাস্ক পরে একের পর এক ছবি আঁকেন তিনি। এবার বিজেপির নেতা শুভেন্দু অধিকারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই ছবি আঁকা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেন।

বিজেপির প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্যের হয়ে আজ রাজারহাট গোপালপুরে একটি সভা করেন শুভেন্দু অধিকারী। ওই সভা থেকে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খোঁচা দিয়ে বলেন, মাননীয়া হাইকোর্ট মানেন না। সংবিধান মানেন না। তিনি সকাল থেকে ধরনায় বসে একটি চপের ছবি এঁকেছেন। দুর্ভাগ্য হল এখন ওনার সেই ছবি কেনার জন্য কেউ নেই। ছবিটা কিনবে কে? সুদীপ্ত সেন আর গৌতম কুণ্ডু তো জেলে।

শুভেন্দু অধিকারী বলেন, নির্বাচন কমিশন আমাকেও নোটিশ পাঠিয়েছি। আমি সেই নোটিশের জবাবও দিয়েছি। কমিশন আমাকে আদর্শ আচরণবিধি মেনে চলার কথা বলেছে। আমি কমিশনের নির্দেশ মেনে চলব। আমাদের নেতা রাহুল সিনহার উপর ৪৮ ঘণ্টার জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কমিশন। তিনিও তা মেনে নিয়েছেন। কিন্তু মাননীয়া মানতে পারেন নি। উনি ধরনায় বসে পড়েছেন।

শুভেন্দু অধিকারী রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের একটি পুরনো কথা উল্লেখ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র কটাক্ষ করেন। শুভেন্দুবাবু বলেন একদা পার্থবাবু বলেছিলেন, ‘যারা অযোগ্য তাঁরাই ধরনায় বসে।” এরপর শুভেন্দু অধিকারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে বলেন, মাননীয়া বলেছেন বাংলাকে গুজরাটিদের হাতে তুলে দেব না। উনি তো সারাদিন গান্ধী মূর্তির পায়ের কাছে বসেছিলেন। উনি কি জানেন মহত্মা গান্ধীর জন্ম কোথায়?