Press "Enter" to skip to content

যেটা আমাদের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হয়েছে, সেটা ফেরত নিতে হবে! মুক্তি পেতেই ভারতের বিরুদ্ধে বিষ উগরানো শুরু মেহবুবার

নয়া দিল্লীঃ জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী () মুক্তি পেয়েছেন। আগস্ট ২০১৯-এ জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা রদ করার পর পিডিপি প্রধান মেহবুবা মুফতিকে জম্মু কাশ্মীরের অন্যান্য আলগাওবাদি নেতা সমেত নজরবন্দী করা হয়েছিল। প্রায় ১৪ মাস ১ সপ্তাহ পর ওনাকে মুক্তি করা হল। এই বছরের জুলাই মাসেই তিন মাসের জন্য ওনার হেফাজত বেড়েছিল। কিন্তু সময়ের আগেই ওনাকে মুক্ত করা হয়েছে।

Mehbooba Mufti

মুক্তি পাওয়া মাত্রই তিনি বিষ উগরানো শুরু করে দিয়েছেন। উনি স্মরণ করিয়ে দেন যে, কীভাবে তিনি এক বছরের বেশি সময় ধরে নজরবন্দী ছিলেন। উনি বলেন, উনি বন্দিদশায় থাকাকালীন পাঁচই আগস্ট ২০১৯ এ নেওয়া কেন্দ্রের মোদী সরকারের কালো সিদ্ধান্ত ওনার মন আর মস্তিষ্কে দারুণ কুপ্রভাব ফেলেছে। মেহবুবা আশা জাহির করে বলেন যে, কাশ্মীর আগামী দিনে আবার পাঁচই আগস্ট ২০১৯ এর আগের অবস্থা বহাল হবে।

তিনি বলেন, জম্মু কাশ্মীরের কোনও মানুষই সেদিনের অপমানকে ভোলাতে পারবে না। জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কাশ্মীরের সবাইকে এটা মনে রাখতে বলেন যে, দিল্লী দরবার ২০১৯ এর আগস্ট মাসের পাঁচ তারিখ অসাংবিধানিক আর বেআইনি ভাবে কাশ্মীরের মানুষের অধিকার ছিনিয়ে নিয়েছে। এবার সেটিকে আবারও ফেরত পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেন তিনি।

https://platform.twitter.com/widgets.js

জানিয়ে দিই, এর আগে জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা হটিয়ে দেওয়া নিয়ে বিতর্কিত বয়ান দিয়ে শিরোনামে আসেন। তিনি বলেছিলেন যে, আশা করি আগামী দিনের চীনের সাহাজ্য নিয়ে আমরা জম্মু কাশ্মীরে আবারও ৩৭০ ধারা বহাল করতে পারব। ওনার এই বয়ানের পর বিজেপির নেতারা ওনাকে একের পর এক আক্রমণ করেন।