Press "Enter" to skip to content

যে এয়ারবেসে রাখা হয়েছিল ভারতের রাফাল বিমান, সেখানেই এসে পড়ল ইরানের তিনটি মিসাইল


ওয়েবডেস্কঃ ফ্রান্স থেকে ের () উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে পাঁচটি রাফাল বিমান ()। মঙ্গলবার রাতে রাফাল গুলো সংযুক্ত আরব আমিরাতের () এয়ারবেসে হল্ট করেছিল। শোনা যাচ্ছে যে, ইরানের রেভুল্যুশনারি গার্ড দ্বারা করা একটি সৈন্য অভ্যাসের সময় এই এয়ারবেসের পাশে কম করে তিনটি মিসাইল আছড়ে পড়েছিল। উল্লেখ্য, ইরান হরমুজে যুদ্ধঅভ্যাস শুরু করেছে। আল দাফরা এয়ারবেস UAE এর রাজধানী আবুধাবি থেকে মাত্র এক ঘণ্টা দূরত্বে অবস্থিত। আর এটা আমেরিকা এবং ফ্রান্সের সেনার বেস হাউসও। এই ঘটনার পর আল দাফরা এয়ারবেসকে হাই অ্যালার্টে রাখা হয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

আপনাদের জানিয়ে দিই পাঁচটি রাফাল বিমানের প্রথম খেপ বুধবার ভারতে পৌঁছাচ্ছে। সোমবার এই বিমান গুলো ফ্রান্স থেকে ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল আর মঙ্গলবার রাতে UAE এর আল দাফরা এয়ারপোর্টে হল্ট দিয়েছিল। রাফাল বিমান গুলো গোটা রাত ওই এয়ারবেসে ছিল। আমেরিকার সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, UAE এর আল দাফরা এয়ারবেস আর কাতারের আল উদীদ এয়ারবেস নিয়ে অ্যালার্ট জারি করে বলা হয়েছিল যে, মিসাইল সম্ববত ওই দিকে এগিয়ে আসছে। সিএএন জানায়, সেখানকার আধিকারিকদের কভার করার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছিল, কিন্তু কোন মিসাইল এয়ারবেসে এসে পড়েনি।

ফক্স নিউজ এই ঘটনার কথা স্বীকার করে বলে, মধ্য পূর্বের দুটি আস্তানায় আমেরিকার সৈনিক আর বিমান গুলোকে হাই অ্যালার্টে রাখা হয়েছিল, কারণ তিনটি ইরানি মিসাইল এয়ারবেসের পাশে পড়েছে। শোনা যায় যে, ইরান ওই এলাকায়সৈন্য অভ্যাস করছিল।

এর আগে মঙ্গলবার সেফ নিউজ ইরানের রেভুল্যুশনারি গার্ড-এর একটি স্পীডবোটের ছবি জারি করেছিল, ওই স্পীডবোট থেকে জুলাইয়ে একটি সৈন্য অভ্যাসের সময় মিসাইল ফায়ার করা হয়েছিল।