Press "Enter" to skip to content

যোগী ঝড়ে উড়ে গেল যাদব পরিবারের মূল ঘাঁটি, ৩২৩ টির মধ্যে ২৯৩ টি আসনে জয়লাভ করে বিজেপিই সর্বেসর্বা

লখনউঃ সমাজবাদী পার্টির () মধ্যে বিগত চার বছর ধরে চলে আসা দ্বন্দ্ব আর ের () রণনীতির ফলে প্রায় তিন দশক পর উত্তর প্রদেশের সহকারী গ্রাম বিকাশ ব্যাঙ্কে মুলায়ম সিং যাদবের পরিবারের দুর্গ ভেঙে পড়ল। ১৯৯৯ সালের বিজেপির শাসনকাল বাদ দিলে ১৯৯১ থেকে ২০২০ এর এপ্রিল পর্যন্ত এই ব্যাঙ্কে মুলায়ম সিং যাদবের পরিবারের কবজা ছিল। এটা প্রথমবার হল যে, ৩২৩ টি শাখার মধ্যে মাত্র ১৯ টি তেই বিরোধীরা কবজা করতে সক্ষম হল।

দশটি স্থানে নির্বাচন বাতিল করা হয়েছিল এবং ১১ টি স্থানে নির্বাচন প্রক্রিয়া অনুষ্ঠিত হতে পারেনি। বাকি ২৯৩ স্থানে বিজেপি গেরুয়া পতাকা তুলেছে। সমবায় রাজনীতির শীর্ষস্থানীয় নেতা বলে বিবেচিত শিবপাল যাদব এবং তাঁর স্ত্রী তাদের আসন ধরে রাখতে পেরেছেন। কিন্তু পূর্ব থেকে পশ্চিম পর্যন্ত, মুলায়ম পরিবার অথবা অন্য কোনও বিরোধীরা টিকতে পারেনি।

উত্তর প্রদেশের সমবায় গ্রাম বিকাশ ব্যাঙ্কের সভাপতি আর উপ সভাপতি পদে এবার বিজেপির কবজা হয়ে গিয়েছে। লখনউ সমবায় গ্রাম্য বিকাশ ব্যাঙ্কের সভাপতি পদে সন্তরাজ যাদব বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। আর উপ সভাপতি পদের জন্য কেপি মালিক বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। দুটো আসনেই বিজেপির কবজা হয়েছে। এখনো পর্যন্ত শিবপাল যাদব সহকারী গ্রাম্য বিকাশ ব্যাঙ্কের সভাপতি ছিলেন।

২০২২ এ উত্তর প্রদেশে বিধানসভার নির্বাচন হতে চলেছে। আর তাঁর আগে বিভিন্ন দল গুলো নির্বাচনের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছে। তবে বিজেপির এই বিশাল জয় বিরোধী শিবিরে নির্বাচনের আগে বড় ঝটকা দিলো।