Press "Enter" to skip to content

‘রাজনীতিতে এসে হয়ত ভুল করেছি” বলা তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারি করলেন বিদায়ের ঘোষণা


 গত পরশু হুগলির বলাগড়ের তৃণমূল বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারি ফেসবুকে একটি পোস্ট করে মানুষের কষ্ট নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন। সে ফেসবুক পোস্টে তিনি এও বলেছিলেন যে, হয়ত রাজনীতিতে না আসলেই ভালো করতাম। ওনার সেই ফেসবুক পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমত হয়ে যায়। আর ওনাকে নিয়ে একের পর এক সংবাদমাধ্যম খবর করা শুরু করে দেয়।

এবার সংবাদমাধ্যমের সেই খবরের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন মনোরঞ্জনবাবু। এদিন তিনি নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে ক্ষোভ উগরে দেন। তিনি অভি করে বলেন যে, ওনার বয়ানকে বিকৃত করে অন্যভাবে পেশ করে সরকারকে বদনাম করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে সংবাদমাধ্যমে। আর তিনি এই কারণে ‘বিদায়” জানানোর ঘোষণাও করে দেন।

তবে বিদায়টা রাজনীতি থেকে নয়, তিনি বিদায় জানালেন সোশ্যাল মিডিয়ায় আর সাক্ষাৎকার দেওয়া থেকে। এদিন মনোরঞ্জনবাবু ফেসবুকে আরও একটি পোস্ট করে লেখেন, ‘ আমাকে কিছু দিনের জন্য ফেসবুক থেকে বিদায় নিতে হচ্ছে। বন্ধ করে দিতে হচ্ছে টিভির সাক্ষাৎকার। কারন কিছু মানুষ খুব ধুর্ত আর কৌশলি হয়ে উঠেছে।যাদের হৃদয় বৃত্তি মরে গেছে। তারা মানবিক আর্তির ধার ধারেন না।সহজ সরল ভাষা ভাবনাকে বাঁকিয়ে দুমড়ে মুচড়ে একটা অন্য রূপ দিয়ে মা মাটি মানুষের জনপ্রিয় সরকারকে বদনাম করতে চায় বিড়ম্বনার মধ্যে ফেলে বিশেষ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে চায়।”

তিনি আরও লেখেন, ‘কোন একটা শিবির থেকে তাদের এই সব কাজে নিয়োজিত করা হয়েছে। যারা এই বিপুল জনাদেশ নিয়ে তৃতীয় বার ক্ষমতায় ফিরে আসা মা মাটি মানুষের দল দলটাকে যেমন সহ্য করতে পারছে না, আমাকেও সহ্য করতে চাইছে না ছত্রিশ হাজার ে পিছিয়ে থাকা অঞ্চল থেকে নয় হাজার ভোটে আমার জিতে যাওয়া। তাই সময় সুযোগ পেলেই আমাকে নানা কায়দায় বিপাকে ফেলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।”

তৃণমূল বিধায়ক শেষে লেখেন, ‘আপনারা দেখেছেন নিশ্চয় আমার মুখে আটকে যাওয়া একটা শব্দ ” অমানবিকতা” নিয়ে কি ব্যাঙ্গ বিদ্রুপের ঝড় তুলেছিল। আবার তেমন একটা ঝড় তোলার চেষ্টা চলছে আমার একটা মানবিক আর্তি মাখানো ফেসবুক পোস্ট নিয়ে। ওরা থামবে না। কিছু না কিছু করতেই থাকবে। তাই মনে হচ্ছে আমার থেমে যাওয়া উচিৎ। লেখা আর বলা আপাততঃ কিছুকাল বন্ধ থাকুক। এখন কাজ করতে থাকি। দলিত দরিদ্র খেটে খাওয়া মানুষের পক্ষে যা করা যায়, সীমিত ক্ষমতার মধ্যে যতটুকু করা যায়। আমার কাজ আমার হয়ে যা বলার তা বলবে।”

উল্লেখ্য, ওনার বয়ান নিয়ে সংবাদমাধ্যমে বিকৃত হয়ে খবর প্রকাশ হওয়ার তিনি ব্যাথিত। আর কিছুদিন আগে ওনাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল হারে ‘ব্যাঙ্গ-পর্ব” চলেছিল। সেই ঘটনাতেও তিনি আঘাত পেয়েছেন, সেটা ওনার মন্তব্যেই পরিস্কার।