Press "Enter" to skip to content

রাজস্থান পঞ্চায়েত নির্বাচনে বাম্পার জয় বিজেপির, সরকারে থেকেও বিশাল হারের সন্মুখিন কংগ্রেস

জয়পুরঃ রাজস্থান পঞ্চায়েত () সমিতি আর জেলা পরিষদের নির্বাচনে যার সরকার তাঁর পক্ষের পরিণামের পরম্পরা ভেঙে গেল। আর এবার রাজ্যে ের () সরকার থাকার পরেও () ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছে। কংগ্রেসের সমস্ত দিগগজ নেতার বিধানসভা এলাকায় দলের হার হয়েছে।

২১ টি জেলার নির্বাচনে ১৪ টি জেলায় বিজেপির বাম্পার জয় হাসিল করে নিয়েছে। আর কংগ্রেসের খাতায় এসেছে মাত্র ৫ টি জেলা। এছাড়াও ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টি একটি জেলায় নিজেদের খাতা খুলেছে। হনুমান বেনিবালের রাষ্ট্রীয় লকতান্ত্রিক পার্টি নাগোর জেলায় তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে। আর বাড়মের জেলায় বিজেপি আর কংগ্রেস ১৮ টি করে আস্ন জিতেছে।

আরেকদিকে, পঞ্চায়েত সমিতির নির্বাচনে বিজেপি ১৮৩৩ টি আসনে জয় হাসিল করে নিয়েছে। শাসক দল কংগ্রেস ১৭১৩ টি আসনে জয়লাভ করেছে। ২১ টি জেলায় হওয়া নির্বাচনে বিজেপি পালি, সীকর, চুরু, ঝুনঝুনু, বুন্দি, আজমের, নাগৌর, টঙ্ক, উদয়পুর, ভীলবাড়া, ঝালাবাড়, রাজসমন্দ, চিতৌরগড় আর জালোর সমেত ১৩ টি জেলায় জয় হাসিল করেছে। ২২২ টি পঞ্চায়েত সমিতির মধ্যে বিজেপি ৯৩ টি পঞ্চায়েত সমিতিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হাসিল করেছে। কংগ্রেস ৮১ টি পঞ্চায়েত সমিতিতে জয় হাসিল করেছে। আর ৪২ টি পঞ্চায়েত সমিতি ত্রিশঙ্কু হয়েছে।

আরেকদিকে কংগ্রেস, হনুমানগড়, প্রতাপগড়, বাঁশবাড়া আর বীকানের সমেত পাঁচ জেলায় জয় পেয়েছে। হনুমান বেনিবালের দুর্গ বলে পরিচিত নাগৌরে বিজেপি ২০ টি আসন আর কংগ্রেস ১৮ টি আসনে জয়লাভ করেছে। আর হনুমান বেনিবালের দল মাত্র ৯ টি আসন দখল করতে পেরেছে।

এর আগে ২০০৩ আর ২০১৩ সালে যখন অশোক গেহলট এর সরকার ছিল, তখন জেলা পরিষদ আর পঞ্চায়েত সমিতির নিরবাওনে ৭০ শতাংশ আসনে কংগ্রেস জয় হাসিল করেছিল। আর বসুন্ধরা রাজের সরকারের সময় বিজেপি ৭০ শতাংশ আসনে জয়লাভ করেছিল। কিন্তু এবার কংগ্রেস সরকার বিশাল হারের সন্মুখিন।

কংগ্রেসের সমস্ত দিগগজ নেতার এলাকায় দল হেরেছে। রাজস্থানের বর্তমান কংগ্রেস সভাপতি গোবিন্দ সিং ডোটাসরার নির্বাচনী এলাকা লক্ষণগড়ে কংগ্রেস হারের সন্মুখিন হয়েছে। প্রাক্তন উপ মুখ্যমন্ত্রী সচিন পাইলটের এলাকা টঙ্ক, স্বাস্থ্য মন্ত্রী রঘু শর্মার এলাকা আজমের, ক্রীড়া মন্ত্রী অশোক চন্দনার এলাকা বুন্দি সমবায় মন্ত্রী উদউলাল অঞ্জনার এলাকা চিতৌরগড়েও কংগ্রেসের বড় হার হয়েছে।