Press "Enter" to skip to content

রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করতে আগস্ট মাসেই অযোধ্যায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

নয়া দিল্লীঃ সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের অষ্টম মাসে () নির্মাণের শুভ সময় আসতে চলেছে। ভূমি পুজনের জন্য প্রধানমন্ত্রী () পাঁচ আগস্ট অযোধ্যা যেতে পারেন। সেই সময় শ্রীরাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্রের সমস্ত ট্রাস্টি, শীর্ষ সাধু-সন্ন্যাসী সমেত সংঘের প্রধান মোহন ভাগবত, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, রাজ্যপাল আনন্দিবেন প্যাটেল সমেত অনেকেই এই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেন। এর ঘোষণা ট্রাস্টের ১৮ জুলাইয়ের বৈঠকে হতে পারে।

শ্রীরাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ট্রাস্টের সভাপতি মহন্ত নৃত্যগোপাল দাস প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একটি চিঠি লিখেছিলেন। আর সেই চিঠির কারণেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগস্ট মাসে অযোধ্যায় যেতে পারেন। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে ৩রা আগস্ট শ্রাবণ পূর্ণিমা অথবা ৫ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান আয়োজনের চেষ্টা চালাচ্ছে। শ্রীরাম জন্মভূমি ট্রাস্ট সুত্র অনুযায়ী, অযোধ্যায় রাম মন্দিরের গর্ভগৃহত্ব ভূমি পুজন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মন্দির নির্মাণের বিধির শুভারম্ভ করবেন। এই অনুষ্ঠানে ওনার পছন্দসই কয়েকজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও উপস্থিত থাকবেন। করোনার কারণে মন্দিরের ভূমি পুজন অনুষ্ঠানে কোন ভিড় জমতে দেওয়া হবে না।

আশা করা যাচ্ছে যে, আগামী সপ্তাহের মধ্যে তারিখের ঘোষণা করা হবে। আপনাদের জানিয়ে দিই, রাম মন্দিরের শলিন্যাস ১৯৮৯ সালে করা হয়েছিল। এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সেটির প্রতীকী শুভারম্ভ করবেন। বিজেপির সভাপতি জেপি নাড্ডা সমেত কয়েকজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এই অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেন। রাম মন্দির ট্রাস্টের সভাপতি মহন্ত নৃত্যগোপাল দাস প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখে অযোধ্যা সফরে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। সেখানে তিনি আবেদন করেছিলেন যে, উনি যে অতি শীঘ্রই অযোধ্যা এসে রাম মন্দির নির্মাণের শুভারম্ভ করেন।

ট্রাস্টের সভাপতি এও লিখেছিলেন যে, ভার্চুয়াল অথবা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যেন স্বয়ং এসে রাম মন্দিরের শিলন্যাস করেন। মহন্তের উত্তরাধিকারী কমলনয়ন দাস বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে, খুব শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে।