Press "Enter" to skip to content

রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ১১ কোটি টাকা চাঁদা দিলেন হিরে ব্যবসায়ী, দীর্ঘদিন ধরে যুক্ত সঙ্ঘের সাথে

আহমেদাবাদঃ রাম নগরী অয্যোধ্যায় হতে চলা ভব্য রাম মন্দির নির্মাণের জন্য গতকাল শুক্রবার থেকে চাঁদা সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে। নতুন মন্দিরের জন্য সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে শিল্পপতিরা পর্যন্ত সহযোগিতা করছে। হিরে ব্যবসায়ী গোবিন্দভাই ঢোলকিয়া অয্যোধ্যায় ভব্য রাম মন্দির নির্মাণের জন্য ১১ কোটি টাকা দান করেছেন।

গোবিন্দভাই গুজরাটের একজন হিরে ব্যবসায়ী। তিনি ডায়মন্ড কোম্পানি শ্রীরামকৃষ্ণ এক্সপোর্টের ফাউন্ডার। হিরে ব্যবসায় এই নাম খুবই পরিচিত। আহমেদাবাদ মিররের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, গোবিন্দভাই গুজরাটে মন্দির নির্মাণের জন্য চাঁদা সংগ্রহ করার অভিযান চালাচ্ছেন। তিনি গুজরাটে রাম মন্দির নিধি সমর্পণ অভিযানের প্রধান, আর ওনার নেতৃত্বেই রাজ্যে প্রথম দফায় শিল্পপতি আর বড়লোকদের থেকে চাঁদা সংগ্রহ করা হচ্ছে। উনি দীর্ঘদিন ধরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবকের সাথে যুক্ত।

রাম মন্দির নির্মাণের জন্য গতকাল চাঁদা জড়ো করার অভিযান শুরু করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। তিনি সর্বপ্রথম ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দিয়ে এই অভিযান শুরু করেন। রাষ্ট্রপতি রাম মন্দির নির্মাণের জন্য চাঁদা মন্দির ট্রাস্টের কাছে দেন। চেকের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি চাঁদা দেন।

শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট আর VHP মিলে গোটা দেশে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য চাঁদা জড়ো করার অভিযান শুরু করেছে। এই অভিযান দেড় মাস চলবে আর দেশের প্রায় ১৩ কোটি পরিবারের কাছে পৌঁছানর লক্ষ্য রাখা হয়েছে। এই অভিযান অনুযায়ী, ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দেশে ২৭ কোটি মানুষ পর্যন্ত পৌঁছানর লক্ষ্য রাখা হয়েছে।