Press "Enter" to skip to content

রাম মন্দির নিয়ে বেঁকে বসলেন কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ শঙ্করাচার্য স্বরুপানন্দ সরস্বতী, বললেন মন্দির নির্মাণের জন্য জনতার রায় নেওয়া উচিৎ

নয়া ঃ অযোধ্যায় () রাম (Ram Mandir) নির্মাণের জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ৫ই আগস্ট মন্দিরের ভিত্তি স্থাপন করবেন। এবার শুভমুহূর্তের সময় নিয়ে শঙ্করাচার্য স্বরুপানন্দ সরস্বতী মহারাজ (Swaroopanand Saraswati) প্রশ্ন খাড়া করেছেন। আপনদের জানিয়ে দিই, উনি ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত। উনি ভূমি পূজনের জন্য নির্ধারিত সময়কে অশুভ বলে জানিয়েছেন। শঙ্করাচার্য দাবি জানিয়েছেন যে, মন্দির নির্মাণের জন্য জনতার রায় নেওয়া উচিৎ।

উল্লেখ্য, অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের সিদ্ধান্ত সুপ্রিম কোর্ট নিয়েছে। মন্দির নির্মাণের জন্য ভূমি পূজনের তারিখ রামলালা ট্রাস্ট নির্ধারিত করেছে। ৫ আগস্ট ভূমি পূজনের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ পাঠানো হয়েছে, কিন্তু এবার জগতগুরু শঙ্করাচার্য স্বরুপানন্দ সরস্বতী মহারাজ এই ভূমি পূজনের তারিখ নিয়ে প্রশ্ন খাড়া করেছেন। উনি এই ভূমি পূজনের সময়কে অশুভ বলে জানিয়েছেন। শঙ্করাচার্য মহারাজ বলেছেন, আমি রাম ভক্ত, রাম মন্দির যেই বানাক না কেন, আমি হব। কিন্তু মন্দির বানানোর জন্য উচিৎ তিথি আর শুভ মুহূর্ত নির্ধারণ করার দরকার।

শঙ্করাচার্য মহারাজ এও দাবি করেছেন যে, যখন রামললার মন্দির জনতার পয়সা দিয়েই বানানো হচ্ছে, তাহলে মন্দিরের মডেল নিয়ে জনতার কাছ থেকেও মত নেওয়া উচিৎ। উনি এও দাবি করেছেন যে, মন্দির কম্বোডিয়ার অঙ্কোরভাট এর মতো বিশাল আর চমৎকার হোক। অযোধ্যার সন্তরা এই ইস্যুতে সোজাসুজি শঙ্করাচার্য সরস্বতী মহারাজকে শাস্ত্রের চ্যালেঞ্জ জানিয়েছে। ওনারা জানাচ্ছেন যে, হনুমান চালিশা থেকে শুরু করে ঋকবেদ পর্যন্ত যদি শঙ্করাচার্য সরস্বতী মহারাজের সবকিছুর জ্ঞান থাকে, তাহলে এসে প্রকান করুক যে ৫ই আগস্ট ভূমি পূজন করা ভুল।

রামললার মন্দিরের ডিজাইনও সামনে এসেছে। নতুন ডিজাইনে অনেক বদল আনা হয়েছে। এবার রাম মন্দির তিন তলার হবে। এই মন্দিরের দীর্ঘতা ২৬৮ ফুট, আর প্রস্থ ১৪০ ফুট হবে। মন্দিরের উচ্চতা ১৬১ ফুট হবে। গর্ভগৃহ, সিংহদ্বার, অগ্রভাগ, নৃত্য মণ্ডপ আর রঙ্গ মঞ্চে কোন বদল আনা হবে না।