Press "Enter" to skip to content

রাশিয়া, আমেরিকা নয় ভারতের সবথেকে কাছের বন্ধু হিসেবে স্বীকৃতি পেল এই দেশ

নয়া দিল্লিঃ ভারতের বিদেশ নীতি এবং আন্তর্জাতিক এই সময় যথেষ্ট জটিল পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে। বিশেষত তালিবান ফের একবার আফগানিস্তান দখল করার পর যেভাবে সেখানে নিজেদের ঘাঁটি শক্ত করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে চীন, তাতে ভারতের আন্তর্জাতিক নীতি কি হবে তা নিয়ে যথেষ্ট জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এই পর্যায়ে এবং রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক ঠিক কী দাঁড়াবে তাও একটি পর্যালোচনা বিষয়। বিশেষত আফগানিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের জটিলতা বৃদ্ধি হওয়ায় ভারতের বৈদেশিক বাণিজ্য নীতিতে প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এমতাবস্থায় ভারতের প্রয়োজন এমন এক রাষ্ট্রের বন্ধুত্ব, যারা সর্বদা ভারতের পাশে থাকবে এবং যেকোন পরিস্থিতিতে তাদের বন্ধুটা প্রত্যাশা করতে পারবে ভারত। এবার এই তালিকায় উঠে এলো ইজরায়েলের নাম। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বর্তমানে ইজরায়েল সফরে রয়েছেন। এখানে একদিকে যেমন তিনি হাইফার বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তেমনি তিনি বলেন, এই মুহূর্তে ইজরায়েল ভারতের সবথেকে বিশ্বস্ত ও নির্ভরযোগ্য দেশ, যার ওপর যেকোনও পরিস্থিতিতে নির্ভর করা চলে।

জানা গিয়েছে ভারত এবং ইজরায়েল একটি নতুন কোয়ার্ড বা চতুর্ভুজ গঠন করতে চলেছে। ইজরায়েলের বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় করতে এই চতুর্ভুজ আরও বড় ভূমিকা নেবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। এই মুহূর্তে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ইজরায়েল এবং ভারতের বাণিজ্যিক সম্পর্ক যথেষ্ট ভালো। তবে এই চতুর্ভুজ গঠন হলে তা আরও উন্নত হবে। ভারত এবং ইজরায়েল ছাড়াও এই চতুর্ভুজে থাকছে সংযুক্ত আমিরশাহী এবং আমেরিকা। জানা গিয়েছে চারটি দেশ নিজেদের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির জন্য কাজ করবে।

এছাড়াও ভারতের সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল সোলার অ্যালায়েন্সে যোগদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইজরায়েল। এই সিদ্ধান্ত অপ্রচলিত শক্তির ক্ষেত্রে দুই দেশকে আরও কাছাকাছি আনতে সাহায্য করবে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের। যদিও ভারত অন্যান্য দেশের সঙ্গে যেমন সম্পর্ক বজায় রাখছে তেমনি বজায় রাখবে। তবে এটি একটি বিশেষ চুক্তি, যা আগামী দিনে বাণিজ্য ক্ষেত্রে ভারতীয় অর্থনীতিকে গতিদানে সাহায্য করতে পারে।