Press "Enter" to skip to content

রুজিরা নয়, আমি অভিষেক ব্যানার্জীর আসল স্ত্রী- দাবি অঙ্কিতা ভট্টাচার্য নামের এক মহিলার


তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা এবং ডায়মন্ড হারবারের সাংসদকে নিয়ে এক নতুন বিতর্ক সামনে এসেছে। এই বিতর্ক মূলত সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সামনে এসেছে। আসলে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক মহিলা নিজেকে অভিষেক ব্যানার্জীর স্ত্রী বলে দাবি করেছেন। অঙ্কিতা ভট্টচার্য নামের এক মহিলা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিজেকে অভিষেক ব্যানার্জীর স্ত্রী বলে দাবি করেছেন। একই সাথে তার এও দাবি যে রুজিরা নারুলা অভিষেক ব্যানার্জীর সাজানো/নকল স্ত্রী।

অঙ্কিতা ভট্টচার্য নামের ওই মহিলা তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, “রুজিরা নারুল নামের যে মেয়েটি আছে সে অভিষেক ব্যানার্জীর আসল স্ত্রী নয়। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর আসল স্ত্রী আমি। রুজিরা নামের যে মেয়েটি আছে তার পরিচয় সে সোনা পাচারকারী। আমার পরিচয়ে তাকে লুকানো হয়েছে। আমাকে মেডিসিন দিয়েছিলেন।”

মমতা ব্যানার্জীকে আক্রমন করে অঙ্কিতা ভট্টচার্য লিখেন, “আমি আপনাকে কি করে ছাড়ি? আপনাকে তো জেল না খাটিয়ে আমি চুপচাপ থাকবো না। আপনিতো নারুলা বলে যে মেয়েটি আছে, তাকে সাপোর্ট করছেন। অর্থাৎ সোনা পাচার টা আপনার ব্যবসা।নারুলা বলে যে মেয়েটি, সিবিআই আধিকারিকদের কাছে একটিও প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি, সত্যিই কি তার কাছে কোন উত্তর আছে?
রুজিরা নারুলা বলে যে মহিলাটি আছে, তাকে বলুন সিবিআই আধিকারিকদের কাছে তার জন্ম সার্টিফিকেট জমা করতে।আমি জানি ওই মহিলা সঠিক জন্ম পরিচয় দিতে পারবে না। কারণ আপনি ঘেঁটে ঘ করে রেখেছেন।”

শুধু এই নয়, অভিষেক ব্যানার্জী আসলে মমতা ব্যানার্জীর ছেলে বলেও দাবি এই মহিলার। লক্ষণীয় বিষয় যে অঙ্কিতা ভট্টাচার্য নামের এই মহিলার ইস্যুতে মুখ খুলেছেন বিজেপি নেতা কনিস্ক পান্ডা। বিজেপি নেতা অভিষেক ব্যানার্জীকে আক্রমন করে বলেছেন, অঙ্কিতা ভট্টচার্য কে ভাইপো? সব মিলিয়ে এই মহিলার ফেসবুক পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো শোরগোল তৈরি করেছে তা নিয়ে সন্দেহ নেই।