Press "Enter" to skip to content

লুকিয়ে থাকলেও মিলবে না রেহাই, শত্রুদের শায়েস্তা করতে তেজসে যুক্ত হচ্ছে এই বিধ্বংসী মিসাইল

নয়া দিল্লিঃ ভারতের () স্বদেশী ফাইটার জেট লাইট কমব্যাট এয়ারক্র্যাফট (LCA Tejas) এখন আরও বেশি মারক হতে চলেছে। এবার এই এয়ারক্র্যাফট যুদ্ধের পরিস্থিতিতে নিমিষের মধ্যেই ৭০ কিমি দূরে থাকা শত্রুর আস্তানা ধ্বংস করে দিতে পারবে। উল্লেখ্য, ভারতীয় বায়ুসেনা তেজসের মারক ক্ষমতা বাড়াতে চলেছে, আর সেই ক্রমেই ের থেকে হ্যামার মিসাইলের (HAMMER missile) অর্ডার দেওয়া হয়েছে। এই মিসাইল তেজসের সঙ্গে যুক্ত হবে।

চীন (China) আর পাকিস্তানের (Pakistan) তরফ থেকে লাগাতার আক্রমণাত্বক মনোভাব আপন করার মধ্যেই ভারতীয় বায়ুসেনা তেজসের শক্তি বৃদ্ধি করতে চলেছে। চীন বাস্তবিক নিয়ন্ত্রণ রেখায় রোজই সংঘর্ষের পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে। আর এই কারণেই ভারতীয় বায়ুসেনা তেজসের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে পাকিস্তান এবং চীনকে জবাব দিতে চায়।

ফ্রান্সের হ্যামার মিসাইল হাওয়া থেকে জমিতে হামলা করতে সক্ষম। এই মিসাইল ৭০ কিমি দূরে থাকা শত্রুদের সুরক্ষিত আস্তানা ধ্বংস করতেও সক্ষম। ভারত এর আগেও হ্যামার মিসাইল পেয়েছিল ফ্রান্সের থেকে। বিমানের সঙ্গে ভারত এই মারক মিসাইলও অর্ডার দিয়েছিল। এবার ভারত আলাদা করে হ্যামার মিসাইল এনে তেজসের সঙ্গে যুক্ত করবে। এর ফলে ভারতীয় বায়ুসেনার হাওয়া থেকে জমিতে হামলা করার ক্ষমতা বাড়বে।

ভারতের তেজস যুদ্ধ বিমান আগাগোড়াই চীন আর পাকিস্তানের যুদ্ধ বিমান এর থেকে অধিক উন্নত ও সক্ষম বলে বিবেচিত। আর এবার এই বিমানের সঙ্গে হ্যামার মিসাইল যদি যুক্ত করে দেওয়া হয়, তাহলে এর মারণ ক্ষমতা কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে।