Press "Enter" to skip to content

লুকিয়ে থাকা রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য দারুণ ব্যবস্থা নিলো যোগী সরকার।

উত্তরপ্রদেশ আসার পর থেকে একের পর এক যুগান্তকারী সিধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক সময়ের গুন্ডাদের আড্ডা উত্তরপ্রদেশে আজ গুন্ডারা নিজে থেকে আত্মসমর্পণ করতে শুরু করেছে। কৃষকদের দুর্দশা দূর করার জন্য তাদের ঋণ মুকুব করেছে যোগী সরকার। জানলে অবাক হবেন দেশের সব থেকে বড়ো রাজ্যে যেখানে হাতে গোনা কয়েকটি জেলায় বিদ্যুত ছিল , বাকি জেলাীকে অন্ধকারে কাটাতে হতো সেই উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকার আসার পর প্রত্যেক জেলায় বিদ্যুৎ পৌঁছানোর ব্যবস্থা করে।

শুধু এই নয় সম্প্রতি যোগী সরকার উত্তরপ্রদেশের জনগণের সুরক্ষার উদ্যেশে যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা সবার মন জয় করেছে। আসলে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কেন্দ্র দেশের সমস্থ রাজ্যগুলিকে সতর্ক করে জানিয়েছিল রোহিঙ্গা মুসলিমরা দেশের সুরক্ষার ক্ষেত্রে বিপদজনক। যদিও কেন্দ্রের এই সতর্কবার্তা অমান্য করে পশ্চিমবঙ্গের সরকার রোহিঙ্গাদের বিনা বাধায় প্রবেশ করতে দেয়। এমনকি রোহিঙ্গা প্রবেশের পরেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পশ্চিমবঙ্গের সরকার। অন্যদিকে রোহিঙ্গা ইস্যুকে খুবই গম্ভীর ভাবে নেয় উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার। আসলে কিছুদিন আগেই গোপন সূত্রে প্রদেশের পায়, উত্তরপ্রদেশে কিছু রোহিঙ্গা মুসলিম ও অবৈধ বাংলাদেশী লুকিয়ে রয়েছে। এই খবর পাওয়া মাত্র ইউপি পুলিশকে তাদের খুঁজে বের করে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া হয়।

আর তার কিছুদিনের মধ্যেই উত্তরপ্রদেশের পুলিশ লুকিয়ে থাকা ২৮ জন রোহিঙ্গা মুসলিম ও বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করে। এই কাজ সম্পন্ন করে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ। পুলিশ ১৬ মহিলা ও ১২ পুরুষ রোহিঙ্গা মুসলিের গ্রেপ্তার করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ জানিয়েছে এই রোহিঙ্গা মুসলিমরা উত্তরপ্রদেশের আজমগরে অবৈধভাবে লুকিয়ে বসবাস করা শুরু করেছিল।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.