Press "Enter" to skip to content

“লড়াই থামবে না, কাগজ আমরা দেখাবো না”-NRC ও CAA এর বিরোধ করে বললেন রুপম ইসলাম।

নিয়ে বিরোধীদের তীব্র বিরোধ দেখা মেলার পর এবার তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা মুখ খুলতে শুরু করেছেন। CAA আইন তৈরি হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে ঊত্তপ্ত পরিস্থিতি উৎপন্ন হয়েছিল। CAA আইনের বিরোধে পশ্চিমবঙ্গে বহু ট্রেন, রেল স্টেশন, বাস ও অন্যান্য সরকারি সম্পত্তি যে4 আগুন জ্বালিয়েছিল প্রতিবাদকারীরা। দিল্লী ও উত্তরপ্রদেশেও একই ছবি দেখা মিলেছিল। যদিও দিল্লী ও উত্তরপ্রদেশে পুলিশ তদন্তের পর জানিয়ে ছিল সরকারি সম্পত্তি নষ্ট ও উপদ্রবে অবৈধ বাংলাদেশি ও PFI এর হাত রয়েছে। এখন কট্টরপন্থীদের বিরোধের পর তথাকথিত বুদ্ধিজীবী মাঠে নেমে পড়ছে।

রামচন্দ্র গুহ, অনুরাগ কাশ্যপের মতো তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা CAA ও NRC নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। তবে এই বুদ্ধিজীবীরা কেন কাশ্মীরে হিন্দু বিতাড়নের সময় চুপ ছিলেন তাই নিয়েও পাল্টা প্রশ্ন তুলেছে বিজেপি সমর্থকরা। শরনার্থীরা স্থান পেলে কেন বুদ্ধিজীবীদের কষ্ট হয় তা নিয়েও প্রশ্নঃ তুলেছেন বিজেপি সমর্থকরা।

এ সমস্ত কিছুর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের টলিউড জগতের একাংশ সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। টলিউড জগতের বিশিষ্ট বর্গরা CAA-NRC এর প্রতিবাদ করার জন্য কবিতাও তৈরি করে ফেলেছেন। কবিতার নাম- কাগজ আমরা দেখাবো না। কবিতায় মূলত বলা হয়েছে শাসক আসবে যাবে কিন্তু আমরা কাজগ দেখাবো না। প্রতিবাদীদের উপর লাঠিচার্জ করলেও কাগজ আমরা দেখাবো না।

কবিতা পাঠ করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন সব্যসাচী চক্রবর্তী, স্বস্তিকা, ের মতো সেলিব্রেটিরা। রূপম ইসলাম, স্বস্তিকা সকলেই এক সুরে বলেছেন এ লড়াই চলছে চলবে কিন্তু কাগজ আমরা দেখাবো না। পাল্টা বিজেপি সমর্থকরা বলেছেন জনগণ এদের তোয়াক্কা করে না তাই সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে আসার জন্য এ সমস্থ কিছু করছে। জানিয়ে দি, CAA এর মাধ্যমে শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। অন্যদিকে NRC এর মাধ্যমে রোহিঙ্গা ও অবৈধ বাংলাদেশিদের দেশ থেকে বের করা হবে। অন্যদিকে NPR এর মাধমে জনগণনা করা হবে। তবে এই তিনটির বিরোধেই নেমে পড়েছে পশ্চিমবঙ্গের সেলিব্রেটিরা।