Press "Enter" to skip to content

শত্রুতা বাড়ছে আমেরিকা-তুরস্কের, এরদোগানদের নিষিদ্ধ করার হুঁশিয়ারি বাইডেনের

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ নিউইউর্কে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রসংঘের ৭৬ তম মহাসভায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান যখন ভাষণ দেন, তখন সবাই আশা করেছিল যে ওনার সঙ্গে বাইডেনের সাক্ষাৎ হবে। কিন্তু আল জাজিরার রিপোর্ট অনুযায়ী, বাইডেন এরদোগানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন না বলে পরিস্কার জানিয়ে দেন।

বাইডেনের এই সিদ্ধান্তে এরদোগান একদিকে যেমন হতাশ হন, তেমনই ক্ষুব্ধও হন। উনি তুরস্কের সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাবার্তার সময় বলেন, বাইডেনের আগের আমেরিকার রাষ্ট্রপতিদের সঙ্গে তাঁর কাজ করা নিয়ে কোনও সমস্যা ছিল না। কিন্তু বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর পরিস্থিতি বদলেছে।

এর ঠিক পরের দিন এরদোগান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আবারও সমালোচনা করেন। উনি বলেন, বাইডেনের সঙ্গে আমার আলাপ সন্তোষজনক বলা যায় না। এরদোগান আমেরিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, আমেরিকা জঙ্গি সংগঠনগুলির বিরুদ্ধে লড়াই করার বদলে তাঁদের সমর্থন করছে।

উল্লেখ্য, তুরস্ক আর আমেরিকার সম্পর্কে ফাটল রাশিয়ার কাছে লাভজনক হতে পারে। এরদোগান বলেন, তুরস্ক রাশিয়ার থেকে S-400 মিসাইলের দ্বিতীয় খেপ কেনার জন্য আগ্রহী। তুরস্কের আধিকারিকদের মতে, এই হাতিয়ারের জন্য আমেরিকার সঙ্গে শত্রুতা করলেও লাভ আছে। উল্লেখ্য, বিদেশ বিষয়ক আমেরিকার সিনেট কমিটি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, তুরস্ক দ্বারা কোনও নতুন হাতিয়ার কেনাকাটা করা হলে আমেরিকার আইনের মাধ্যমে তুর্কির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা যেতে পারে।

[ad_2]