Press "Enter" to skip to content

শাহিনবাগে CAA এর বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে ধরনায় বসতে চলেছেন হিন্দু নেতা

প্রসিদ্ধ কার্যকর্তা উপদেশ রানা (Updesh Rana) দিল্লীর শাহিন বাগ (Shaheen Bagh) এলাকায় নাগরিকতা আইনের (CAA) বিরুদ্ধে চলা প্রদর্শনে বিরুদ্ধে ধরনা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই মাসের ৯ তারিখে উপদেশ রানা শাহিন বাগে চলা ধরনা প্রদর্শনকে কাউন্টার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। উপদেশ রানা ইউথ ব্রিগেড নামের একটি সংগঠন চালান তিনি। উপদেশ রানা জানান, ওনার এই সংগঠন গো সেবার কাজের সাথে যুক্ত। উনি বলেন, ‘আমি ৯ ফেব্রুয়ারি শাহিন বাগে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছি। পুলিশ কিছুদিন আগেই আমার কাছে আমার আগামী পরিকল্পনা নিয়ে জানতে চেয়েছিল।” উনি বলেন, আমার এই পরিকল্পনা এখনো স্থির না। তবে আমি ওখানে একটি ধরনার আয়োজন করতে চাই। উনি বলেন, আমার এই প্রদর্শনে মহিলারাও থাকবেন। কিন্তু আমাদের প্রদর্শন গণতান্ত্রিক ভাবেই হবে।

আপানদের জানিয়ে , একদিন আগেই যেই নাবালক দিল্লীর জামিয়ায় গুলি চালিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। সে সোশ্যাল মিডিয়ায় উপদেশ রানাকে ফলো করত। ওই নাবালক ফেসবুকে এটাও বলেছিল যে, তাঁর কাছে রানার থেকে যদি অর্ধেক ফলোয়ার্সও থাকত, তাহলে সে শাহিনবাগকে জালিওয়ানাবাগ বানিয়ে দিত।

ওই নাবালক প্রসঙ্গে উপদেশ রানা বলেন, আমি তাঁকে ব্যাক্তিগত ভাবে চিনিনা। এমন হতে পারে যে, সে আমার সাথে সাক্ষাৎ করেছিল আর অন্যদের মতো সেও আমার সাথে ছবি তুলেছিল। ও আমাকে অনেক সময় ম্যাসেজ করত, কিন্তু আমার মনে হয়না আমি ওকে কখনো রিপ্লাই করেছি।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, ২০১৭ সালে উপদেশ রানা জয়পুর থেকে গ্রেফতার হয়েছিল। সেই সময় রানা শম্ভুলাল রেগারের সমর্থনে একটি র‍্যালি করেছিল। শম্ভুলাল রেগার রাজস্থানে এক ব্যাক্তিকে নৃশংস ভাবে খুন করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও আপলোড করেছিল। আপনাদের এও জানিয়ে রাখি যে, কলকাতার টিপু সুলতান ে ঢুকে বরকতি চর মেরে শিরোনামে আসা ব্যাক্তি হলেন উপদেশ রানা।