Press "Enter" to skip to content

শিক্ষক দিবসের দিন ঘটল অপ্রীতিকর ঘটনা: শিক্ষামন্ত্রীর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখানোয় গ্রেফতার ৪০ শিক্ষক


ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা চিরনিদ্রায় শায়িত হয়েছে। এরাজ্যে বারবারই চাকরির জন্য, নিজের যোগ্যতা তুলে ধরার জন্য শিক্ষিত যুবতীদের আন্দোলনে নামতে হয়েছে। অনশনের রাস্তায় হাঁটতে হয়েছে হবু শিক্ষকদের। কখন‌ও শিক্ষামন্ত্রী বাড়ির সামনে, কখনও বা বিকাশ ভবনের সামনে রাস্তায় নেমে রোদ জল উপেক্ষা করে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন যোগ্য চাকরিপ্রার্থীরা। কিছুদিন আগে বিকাশ ভবনের সামনে শিক্ষিকারা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বদলির প্রতিবাদে। সেই আন্দোলনে অমানুষের মতো আচরণ‌ও দেখেছিল রাজ্যবাসী। ফের একবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর বাড়ির সামনে নিজেদের নায্য দাবী বুঝে নেওয়ার জন্য বিক্ষোভ দেখানোর চেষ্টা করেন হবু শিক্ষক শিক্ষিকারা।

তার ফলে রীতিমতো ক্ষেপে ওঠে প্রশাসন। বিধান নগর কমিশনারেটের তরফে জমায়েতের ে লোকলস্কর পাঠিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪০ জন হবু শিক্ষককে। কিন্তু চাকরিপ্রার্থীদের থেকে জানা গিয়েছে, তাদের দাবি, ২০১৬ সালে নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের যে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল সেই পরীক্ষায় সফল হয়েছেন তারা। মেধাতালিকাতেও অনেকের নাম থাকলেও কেউই এখন অবধি চাকরি পাননি। সেজন্যই যুব ছাত্র অধিকার মঞ্চের পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী বাড়ির সামনে বিক্ষোভের
চিন্তা ভাবনা করে তারা।

কিন্তু বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে তৎপর হয়ে ওঠে প্রশাসন। ৪০ জনকে করে লেকটাউন থানার পুলিশ। এই ঘটনার জেরে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও। তিনি বলেছেন, বিক্ষোভ সকলেই দেখাতে পারে কিন্তু এটা অনৈতিক। রাজ্য সরকার শিক্ষক-শিক্ষিকা ও চাকরিপ্রার্থীদের জন্য যথেষ্ট সদ্ভাবনা পোষণ করে। প্রতিবছর নিয়ম করে এসএসসি ও নেওয়া হচ্ছে।

গতকাল শিক্ষক দিবসের দিনে হবু শিক্ষকদের এই অপমান রাজ্যবাসী কাছে অত্যন্ত দুঃখজনক বার্তা বয়ে নিয়ে এসেছে। এই ঘটনার জেরে রাজ্য সরকারের অস্বস্তি আরও বাড়াবে বলেই মনে করছে রাজনীতিবিদরা।