Press "Enter" to skip to content

শুভেন্দুর বিজেপিতে আসা সময়ের অপেক্ষা মাত্র, জল্পনা উস্কে দিয়ে মন্তব্য মুকুল রায়ের


কলকাতাঃ দুদিনের মধ্যে সমস্ত কিছু পরিস্কার হবে। আমার প্রত্যাশা (Suvendu Adhikari) বিজেপিতে যোগদান করবেন। এহেন মন্তব্য করে জল্পনা বাড়ালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় (Mukul Roy)। জানিয়ে দিই বিগত কয়েকদিন ধরে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে নানান জল্পনা চলছে। রাজ্যের মন্ত্রীসভা থেকে পদত্যাগ করার পর সেই জল্পনা আরও বাড়িয়েছিলেন প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী। এরপর তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়কে ম্যাসেজ করে শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছিলেন যে, একসাথে আর কাজ করা সম্ভব নয়।

শুভেন্দু অধিকারী সৌগত রায়কে এরকম ম্যাসেজ পাঠিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে, তিনি সাথে তৃণমূলের হয়ে আর কাজ করতে চান না। এরপর ক্ষুদিরাম বসুর জন্িনে শুভেন্দু অধিকারী মেদিনীপুরে একটি মিছিলও করেন। সেই মিছিল থেকে তিনি কোনও রাজনৈতিক বার্তা দেন নি। তবে সেখানে তিনি পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, তিনি বাংলা তথা ভারতের ছেলে আর মানুষের হয়ে কাজ করতে চান। এছাড়াও শুভেন্দু অধিকারীর সেদিনের মিছিলে কোনও রাজনৈতিক রঙও ছিল না। শুধু দেশের পতাকা আর ক্ষুদিরাম বসুর ছবি নিয়েই তিনি মিছিল করেন।

আরেকদিকে, আগামী ৬ তারিখ সংবাদমাধ্যমের সামনে এসে তিনি নিজের রাজনৈতিক অবস্থান স্পষ্ট করবেন বলে জানা যাচ্ছে। জানিয়ে দিই, আগামী ৭’ই ডিসেম্বর পশ্চিম মেদিনীপুরে একটি জনসভা আছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তাঁর ঠিক একদিন আগে শুভেন্দু অধিকারী সাংবাদিক সন্মেলন করার ডাক দিয়ে জল্পনা আরও বাড়িয়েছেন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার একদিন আগে সাংবাদিক সন্মেলন ডেকে তৃণমূলকে বড়সড় ঝটকা দিতে পারেন প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী।

আরেকদিকে, আজ তৃণমূলের জেলা সভাপতি, বিধাক আর সাংসদদের নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ মুখ্যমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন শিশির অধিকারীও। মুখ্যমন্ত্রী এই বৈঠকে কড়া ভাবে নির্দেশ দেন যে , হলদিয়া আর নন্দীগ্রামে দলবিরোধী কাজের সাথে যুক্তদের ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন। তিনি এও বলেন যে, এজেন্সি দিয়ে আমাদের ভয় দেখাচ্ছে। এই সময় যারা আমাদের সাথে থাকতে চান থাকুন, আর যারা লুটেরাদের সাথে যেতে চান যান। তিনি যে এই মন্তব্য শুভেন্দু অধিকারীকে উদ্দেশ্য করেই বলেছেন সেটা বলাই বাহুল্য।