Press "Enter" to skip to content

শেষ আশাও খতম, তালিবানকে চ্যালেঞ্জ জানানো মহিলা গভর্নর আটক! গড়েছিলেন নিজের সেনা


নয়া দিল্লিঃ ে কবজা জমানোর পর তালিবানরা একদিকে যেমন সরকার গড়ার প্রচেষ্টায় জুটেছে, তেমনই তাঁরা নিজেদের আসল রূপ দেখানোও শুরু করে দিয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, তালিবানরা সালিমা মাজারিকে পাকড়াও করেছে। সালিমা আফগানিস্তানের প্রথম মহিলা গভর্নর। উনি নিজের সেনা গড়ে তালিবানের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলেন।

বলে দিই, সালিমা তালিবানিদের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য হাতিয়ার তোলার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি নিজের একটি সেনাও গঠন করেছিলেন। আর তালিবানিদের হাতে আটক হওয়ার আগের মুহূর্ত পর্যন্ত তিনি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে নিজের এলাকার রক্ষা করে গিয়েছেন।

যখন আফগানিস্তানের বড়বড় নেতা, আমলা আর আধিকারিকরা দেশ ছেড়ে পালাচ্ছিল, তখন সালিমা নিজের সেনাকে নিয়ে তালিবানের সঙ্গে লড়াই করছিলেন। আফগানিস্তানের বলখ প্রান্ত তালিবানদের কবজায় আসার পরই সালিমাকে চাহর জেলা থেকে আটক করে জঙ্গিরা। বলে দিই, আফগানিস্তানের মোট তিনজন মহিলা গভর্নরের মধ্যে সালিমা প্রথম মহিলা গভর্নর ছিলেন।

সালিমার জন্ম ে হয়েছিল। কিন্তু সে নিজের পৈত্রিক ভূমি আফগানিস্তানে বসবাস করার সিদ্ধান্ত নেয়। আর তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হয়ে আফগানিস্তানে এসে গভর্নর হন তিনি। দেশে তালিবানিদের বিপদ বাড়তেই তিনি নিজের হাতে বন্দুক তুলে নেন আর নিজের সেনা গড়ার লক্ষ্যে নেমে পড়েন। সালিমার সেনায় বহু আফগান যোদ্ধারা ছিল, যারা নিজের বাড়িঘর, সম্পত্তি বিক্রি করে তালিবানদের দেশ থেকে তাড়াতে সালিমার সঙ্গে দিয়েছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। এখন সালিমাই তালিবানদের কবজায়।