Press "Enter" to skip to content

শ্রিলাঙ্কার নাগরিককে পিটিয়ে হত্যা পাকিস্তানে, পুড়িয়ে ফেলল দেহ! উঠেছিল ধর্ম অবমাননার অভিযোগ

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ পাকিস্তানের (Pakistan) শিয়ালকোটে (Sialkot) শুক্রবার উগ্র জনতার ভিড় শ্রীলঙ্কার (Sri Lanka) এক নাগরিককে পিটিয়ে হত্যা করেছে।  এরপর তাঁর দেহ সর্বসমক্ষেই জ্বালিয়ে দেয় পাকিস্তানিরা। এই ঘটনার পর থেকে আন্তর্জাতিক স্তরে ফের মুখ পুড়েছে পাকিস্তানের। অন্য দেশের কথা বাদ দিন, পাকিস্তানের মানুষই এখন এই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছে। এমনকি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) আর রাষ্ট্রপতি পর্যন্ত এই ঘটনার নিন্দা করেছেন।

ইমরান খান এই ঘটনাকে পাকিস্তানের জন্য কালা দিন বলে আখ্যা দিয়েছেন। অন্যদিকে পাক রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভী ট্যুইট করে বলেছেন, শিয়ালকোটের ঘটনা নিশ্চিত রূপে লজ্জাজনক, আর এটি কোনও ধর্মের নয়। শুধু তাই নয়, পাকিস্তানের প্রধান সংবাদ মাধ্যমেও শিয়ালকোটের এই ঘটনার নিন্দা করা হয়েছে।

শ্রীলঙ্কার বংশোদ্ভূত প্রিয়ান্থা কুমারাকে পাকিস্তানের শিয়ালকোটে পিটিয়ে হত্যা করেছে উন্মাদী জনতা। প্রিয়ান্থা একটি কারখানায় আধিকারিক রূপে কর্মরত ছিলেন। এমনও শোনা যাচ্ছে যে, এই মামলা ধর্ম অবমাননার সঙ্গে যুক্ত। এই মামলায় এখন পর্যন্ত ১০০ জনের বেশি মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ইমরান খান জানিয়েছেন যে, দোষীদের ছাড়া হবে না। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ইসলাম অবমাননার অভিযোগ তুলেই প্রিয়ান্থার উপর চড়াও হয়েছিল পাকিস্তানিরা।

অন্যদিকে এই ঘটনার পর শ্রীলঙ্কাও কড়া নিন্দা করেছে। শ্রীলঙ্কার যুবসমাজ বিষয়ক মন্ত্রী নিমল রাজপক্ষ বলেছেন, পাকিস্তানে চরমপন্থীও প্রিয়ান্থাকে নির্মম হত্যার ঘটনা নিন্দনীয়। যদিও, ইমরান খানের আশ্বস্ত করার পর শ্রীলঙ্কা এখন ন্যায় বিচারের আশায় রয়েছে।

[ad_2]