Press "Enter" to skip to content

ষোলকলা পূর্ণ! সমস্ত ভুয়োকে ছাপিয়ে এবার হদিশ মিলল ভুয়ো পঞ্চায়েত প্রধানের, অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা

[ad_1]

জামুরিয়াঃ ভুয়ো IAS অফিসার দেবাঞ্জনের কীর্তিকলাপ সামনে আসার পর রাজ্যে ভুয়ো খোঁজ মেলার পালা থামার নামই নিচ্ছে না। কখনও ভুয়ো আইপিএস, ভুয়ো সিআইডি আবার কখনও ভুয়ো পুলিশ বা ভুয়ো তৃণমূল (All India Trinamool Congress) নেতা। কিন্তু এখন সবকিছুকে ছাপিয়ে এবার খোঁজ মিলল ভুয়ো পঞ্চায়েত প্রধানের (Fake Panchayat Pradhan)। খবর সামনে আসতেই চারিদিকে হইচই পড়ে গিয়েছে। আর বরাবরের ন্যায় এবারও বিরোধীদের নিশানায় শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

জামুরিয়ার তপসী পঞ্চায়েত অফিসে এই ভুয়ো প্রধানের খোঁজ মিলেছে। আর এই ভুয়ো প্রধান সেজেছেন স্থানীয় এক তৃণমূল নেতা। তপসি পঞ্চায়েতে প্রধানের চেম্বারে সাজানো গোছানো চেয়ারে বসে ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়েছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা রাজু মুখোপাধ্যায়। ওনার এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল হারে ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই সেখানে নিজের মতো কমেন্ট করেন। আর এরপরেই শুরু হয় বিতর্ক।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, তপসী পঞ্চায়েতের প্রধান সুশান্ত গোপে দুপুর বেলায় অফিসে ছিলেন না। আর তখনই সুযোগ বুঝে এই কাণ্ড ঘটিয়ে ফেলেন অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা রাজু মুখোপাধ্যায়। ওনার এই কাণ্ডে একদিকে যেমন বিপাকে পড়েছে শাসক দল। তেমনই প্রশাসনিক কর্মকর্তারা চরম ক্ষুব্ধ হয়েছেন। প্রধানের চেয়ারকে অসম্মান করার জন্য অভিযুক্ত তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নিদান দেওয়া হয়ছে। যদিও, অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা জানিয়েছেন, তিনি মজার ছলেই এই ছবি তুলেছেন। এর বাইরে আর কিছুই নয়।

এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই বিরোধীদের নিশানায় তৃণমূল। বিজেপি কটাক্ষ করে বলেছে, রাজুর কোনও দোষ নেই, কারণ সরকারি অফিস আর পার্টি অফিসের মধ্যে কী ফারাক রয়েছে, তা অধিকাংশ তৃণমূল নেতারাই জানেন না। আর সেই কারণেই রাজুবাবু এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন। ওঁরা এটাই করতে পারে। তবে এখন দেখতে হবে যে, নিজেকে প্রধান বানিয়ে তিনি কী কী কাণ্ড ঘটিয়েছেন।

[ad_2]