Press "Enter" to skip to content

সংবিধান লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে আইন বানানোর কোনও অধিকার দেয়নিঃ ওয়াইসি

নয়া দিল্লীঃ ভারতে (India) আজকাল লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে আইনের মামলা শিরোনামে থাকছে। মধ্যপ্রদেশের শিবরাজ সরকার একদিকে যেমন এর বিরুদ্ধে আইনের ড্রাফট তৈরি করেছে। আরেকদিকে, উত্তর প্রদেশেও খুব শীঘ্রই এটা নিয়ে আইন লাগু হতে চলেছে। এছাড়াও বিহার, হরিয়ানাতেও আইন বানানোর দাবি উঠেছে। আর এরই মধ্যে প্রধান তথা হায়দ্রাবাদের সাংসদ () এই ঘটনাকে সংবিধানের ভাবনার বিরুদ্ধে আখ্যা দিয়ে সবাইকে সংবিধান পড়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ওয়াইসি রবিবার বলেন, ‘এরকম আইন সংবিধানের ধারা ১৪ আর ২১ এর বিরুদ্ধে। বিশেষ বিবাহ আইনকে তাহলে বিলুপ্ত করে দিন। আইনের কথা বলার আগে সবাইকে সংবিধান পড়া উচিৎ। ঘৃণার এরকম প্রচার কোনদিনও কাজ করবে না। বিজেপি যুব সমাজের নজর বেরোজগারী থেকে সরিয়ে এসব দিকে নিয়ে যাচ্ছে।

উত্তর প্রদেশের স্বরাষ্ট্র বিভাগ লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে প্রস্তাবিত আইন তৈরি করে নিয়েছে। আইনটিকে পুনরায় দেখার জন্য বিধায়ী বিভাগের কাছে পাঠানো হয়েছে। আগামী ক্যাবিনেট বৈঠকে এই আইন পেশ হতে পারে। বিভাগ দ্বারা তৈরি আইনটিকে ‘অবৈধ ধর্মান্তকরণ বিরোধী বিল” বলা হচ্ছে। এই মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে অভিযুক্তকে ১০ বছর পর্যন্ত জেলে কাটাতে হবে।

মধ্যপ্রদেশে লাভ জিহাদ রোখার জন্য রাজ্য সরকার একটি নতুন আইন ‘মধ্যপ্রদেশ ফ্রিডম অফ রিলিজিওন আইন ২০২০” আনছে। এই আইনের রূপরেখা প্রায় তৈরি হয়ে গিয়েছে। এই আইন অনুযায়ী, লাভ জিহাদের তাজা মামলায় ধরা পড়লে পাঁচ বছরের সাজা দেওয়া হবে। এছাড়াও, এরকম বিবাহ যেগুলো আগেই হয়ে গিয়েছে সেগুলোকে রদ করার অধিকার ফ্যামিলি আদালতকে দেওয়া হবে।