Press "Enter" to skip to content

সনাতন ধর্মের পথে ইন্দোনেশিয়া, বিশাল সিদ্ধান্ত নিল বিশ্বের সবথেকে বড় ইসলামিক দেশ

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ বিশ্বের প্রতিটি দেশেরই নিজস্ব সংস্কৃতি ও সভ্যতা রয়েছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ভারত, চীন, মিশরসহ অনেক দেশই রয়েছে যাদের সভ্যতা কয়েক হাজার বছরের পুরনো বলে মনে করা হয়। তবে, এখন এমন একটি প্রবণতা শুরু হয়েছে যে মানুষ তাদের নিজস্ব সভ্যতা ভুলে আধুনিক যুগে প্রবেশ করছে। এখন এমন সময়েও এমন একটি দেশ আছে যারা তার ঐতিহ্য রক্ষার চেষ্টা করছে এবং সম্প্রতি তার সরকারের একটি সিদ্ধান্ত এই কাজকে বাস্তব করে দেখিয়েছে।

জাকার্তা বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এই শহরটি জলে ডুবে যাওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে এবং এই কারণে ইন্দোনেশিয়া ধীরে ধীরে তার নতুন রাজধানীর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এবং স্থানান্তরের কাজও শুরু হয়েছে। এই কাজের জন্য কয়েক বিলিয়ন ডলার খরচ হবে এবং আগামী বছরগুলিতে এটিই ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে। প্রকৃতপক্ষে, এর মধ্যে সবচেয়ে বিশেষ জিনিসটি হল যে ইন্দোনেশিয়ার নতুন রাজধানীর নাম হল নুসন্ত্রা, এটি হিন্দু ধর্মে বিশ্বাসী রাজা গজ মাদার দেওয়া একটি নাম।

বলে দিই ইন্দোনেশিয়ায় যখন সনাতন ধর্মের প্রভাব ছিল, তখন গজ মাদা নামে একজন রাজা ছিলেন এবং তিনি শপথ নিয়েছিলেন যে তিনি যতদিন না সমগ্র নুসন্ত্রাকে একত্রিত করছেন, ততদিন পর্যন্ত তিনি বিশ্রাম নেবেন না। ওনার দেওয়া এই নামকে পুনর্জীবিত করে ইন্দোনেশিয়ার সরকার এবার তাঁদের নতুন রাজধানীর নামকরণ করছে।

বর্তমান সময়ে ইন্দোনেশিয়া তার সনাতন চিহ্নগুলোকে অনেক বড় প্রতীকের আকারে সংরক্ষণ করে রেখেছে, যেমন তার ২০ হাজার টাকার নোটে গণপতির ছবি, তাঁদের সরকারি বিমান সংস্থার নাম ভগবান বিষ্ণুর বাহক গরুড়ের নামানুসারে গরুড় এয়ারলাইন হয়েছে।

এ ধরনের পদক্ষেপের কারণে পাকিস্তান ও তুরস্কের মতো দেশগুলো বহুবার ইন্দোনেশিয়াকে পরামর্শ দিয়েছে যে, যেহেতু আপনারা বিশ্বের সবচেয়ে বেশি মুসলিম জনসংখ্যার দেশ হিসেবে খেতাব ধরে রেখেছেন, তাই আপনাদের এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়, কিন্তু সেই দেশের সরকার অন্যরকম চিন্তাভাবনা নিয়ে নিজেদের কাজ করে চলেছে।

[ad_2]