Press "Enter" to skip to content

সনাতন ধর্ম ফিরে আসার জন্য হুড়োমুড়ি! একসাথে ৫০ টি পরিবার গ্রহন করলেন হিন্দু ধর্ম

[ad_1]

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের(ভিএইচপি)পক্ষ থেকে ফতেহগড়ের পুল মান্ডিতে অবস্থিত একটি স্কুলে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে ৫০ টি পরিবার ক্রিস্টান ধর্ম্ম ত্যাগ করে পুনরায় হিন্দু ধর্মে ফিরে আসে।ভিএইচপি মন্ত্রী দাবি করেছেন এই রকম আরো ৬০০ টি পরিবার তাদের সম্পর্কে আছে যারা ক্রিস্টান ও অন্যান্য ধর্ম ত্যাগ করে হিন্দু ধর্মে ফিরে আসতে চায়। ভিএইচপি তরফ থেকে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে খুব শীঘ্রই তাদের জন্য কর্মসূচি আয়োজন করে ঘরবাপসি তথা হিন্দু ধর্মে ফেরানো হবে।

কর্মসূচিতে যুক্ত বেশিরভাগ মহিলা হিন্দু ধর্মে ফিরে এসে খুশি ব্যাক্ত করেন। তারা মন্ত্র উচ্চারণ এর সাথে সাথে হনুমান চল্লিশা পাঠ করেন। ভিএইচপি নেতাদের দ্বারা এই যোগদান কর্মসূচিতে জানা যায় যারা হিন্দু ধর্মে ফিরে এসেছেন তার বেশিরভাগ পরিবারই ফতেহগড়ের মহল্লা গোয়ালতলির বাসিন্দা।

তারা বলেছেন তাদের ইচ্ছের বিরুদ্ধে কোনো ধর্ম পরিবর্তন করা হয়নি। তাদের ক্রিস্টান ধর্মে গিয়ে তারা ভুল পথে পথভ্রষ্ট হয়েছে তাই তারা পুনরায় নিজ ধর্মে ফিরতে চেয়েছে। ঋতু নামের মহিলা যিনি ক্রিস্টান ধর্ম থেকে পুনরায় হিন্দু ধর্মে আসছেন বলেছেন তিনি সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন। ইতিমধ্যে তিনি বাড়িতে ঠাকুর প্রতিষ্টা করে পুজো অর্চনা শুরু করে দিয়েছে।

মহল্লা গোয়ালতলির বাসিন্দা শিক্ষক সুজিত বাল্মিকির স্ত্রী রিতু জানান, প্রায় পাঁচ বছর আগে তিনি কয়েকজনের সংস্পর্শে আসেন এবং গির্জায় যেতে শুরু করেন। এখন তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে হিন্দু ধর্মই শ্রেষ্ঠ। হিন্দু ধর্মের মধ্যেই একমাত্র মুক্তির পথ খুঁজে পাওয়া যায়। শিক্ষক জয়গোপাল দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন। তাঁর অনুপ্রেরণা নিয়ে তিনি ভিএইচপি আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন।

সেখানেই তিনি নিজের মতামত প্রকাশ করেন।
ভিএইচপি জেলার মন্ত্রী দীনেশ তোমর জানিয়েছেন যে তিনি ধর্মীয় সফরে গিয়েছিলেন। দুদিন আগে তাকে বলা হয়েছিল যে কিছু পরিবার যারা আবার নিজ ধর্মে ফিরতে চাই তাই তিনি সেই ধর্মীয় যাত্রা বাতিল করে কর্মসূচি তে যোগ দেন।। ভিএইচপি জেলা সংগঠন মন্ত্রী শুভম সর্বেশ্বর বলেছেন যে ধর্ম রক্ষা সংকল্প অভিযানের অধীনে 50 টি পরিবার বাড়ি ফিরেছে। এই পুরুষ ও মহিলা দের ভুল পথ এ বিভান্ত্র করা হয়েছিল কিন্তু তারা এখন সব বুঝতে পেরে বাড়ি ফিরে এসেছে।

[ad_2]