Press "Enter" to skip to content

সরকারের জমি দখল করে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি চালাচ্ছিল আজম খান! এবার দখল করছে যোগী সরকার

লখনউঃ সমাজবাদী পার্টির (Samajwadi Party) নেতা তথা সাংসদ আজম খান (Azam Khan) এর জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ে (Jauhar University) সঙ্কটের মেঘ ঘনীভূত হয়েছে। আজম খানের এই বিশ্ববিদ্যালয়কে টেক ওভার করার প্রস্তুতি শুরু করেছে উত্তর প্রদেশের যোগী সরকার ( Sarkar)। সরকারি সুত্র অনুযায়ী, জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকারের টাকা আছে। ছাত্রদের স্বার্থে এবার সরকার এই বিশ্ববিদ্যালয়কে টেক ওভার করবে। সুত্র অনুযায়ী, সরকার ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রসাশক নিযুক্ত করতে পারে।

আপনাদের জানিয়ে দি, জমি বাজেয়াপ্ত করা নয়ে চর্চায় থাকা সমাজবাদী পার্টির সাংসদ আজম খানের জোহর বিশ্ববিদ্যালয় অনেকদিন ধরেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছিল। অনেক মামলাই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিস্টেমের বিরুদ্ধে চলছে। শুধু তাই নয়, সরকারি জমি দখল করে সরকারি টাকার দুর্ব্যবহার করারও অভিযোগ আছে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর। আর এই বিষয়ে উত্তর প্রদেশের রামপুরে অনেক মামলা দায়ের আছে।

উল্লেখ্য, সরকারের সময় সমাজবাদী পার্টির দাপুটে নেতা আজম খান রামপুরে জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপনা করেছিলেন। এটা ওনার ড্রিম প্রোজেক্টের মধ্যে একটি ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের সঞ্চালন একটি ট্রাস্ট করত, আর এর সংস্থাপক এবং উপাচার্য স্বয়ং আজম খান ছিলেন।

শুধু তাই নয়, আজম খান বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টের সভাপতিও ছিলেন। ওনার ছেলে আবদুল্লাহ আজম সিইও আর ট্রাস্টের সদস্য ছিলেন। আর আজম খানের স্ত্রী তজিন ফাতিমা ট্রাস্টের সদস্য ছিলেন। আর এখন পরিবারের তিনজনই জেলে আছেন।