Press "Enter" to skip to content

সরে দাঁড়ালেন প্রশান্ত কিশোর, যোগীরাজ্যে নির্বাচনের আগে বড় ঝটকা বিরোধী শিবিরে

নয়া দিল্লিঃ  পাঁচ রাজ্যে ২০২২-এ হওয়া আগামী নির্বাচনের জন্য সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে। আর এরই মধ্যে কুশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor) এই নির্বাচনগুলি থেকে নিজেকে দূরে রেখে নিজের অধ্যায়নে সময় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এরফলে ওনার কোনও রাজনৈতিক দলে যোগ দেওয়ার জল্পনাতেও বি লাগল।

উত্তর প্রদেশ সমেত পাঁচ রাজ্যে আগামী বছরের শুরুতে বিধানসভা নির্বাচন হতে চলেছে। শাসক, বিরোধী সমস্ত দলগুলি রণনীতি তৈরি করার কাজে নেমে পড়েছে। কিন্তু অনেকের নজর রাজনৈতিক দলগুলির থেকে বেশি ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের উপর টিকে রয়েছে। উত্তর প্রদেশ জয় জন্য মুশকিল হতে পারে, কারণ সমাজবাদী পার্টি সেখানে ক্ষমতায় ফেরার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। আর কংগ্রেসও নিজেদের অস্তিত্ব বাঁচাতে নতুন মুখের খোঁজ চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে ের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা প্রশান্ত কিশোর বর্তমানে ছুটিতে রয়েছেন, আর আগামী বছর হতে চলা নির্বাচনে তিনি নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারেন। এর মানে এই যে, ২০২২-র বিধানসভা নির্বাচনগুলিতে প্রশান্ত কিশোর কোনও দলের হয়েই কাজ করবেন না। বিগত কিছুদিন ধরে প্রশান্ত কিশোরের কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার খবর ছড়িয়েছিল। কিন্তু এখনও পর্যন্ত এই নিয়ে তেমন কোনও সিদ্ধান্ত নেন নি তিনি।

প্রশান্ত কিশোরের ঘনিষ্ঠ সূত্রের মতে, উনি বর্তমানে লম্বা ছুটি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর আগামী বছরের মার্চ মাসের আগে উনি কোনও অ্যাসাইনমেন্ট নিচ্ছেন না। সূত্র অনুযায়ী, ‘উনি আগামী বছর পর্যন্ত কোনও দলের অন্দরে বা বাইরে থেকে কোনও ভূমিকাই পালন করবেন না। পিকে বলেছেন, উনি যেই কাজ করছেন সেটা এখন করবেন না। তবে উনি কিসের পরিকল্পনা নিয়েছেন সেটা নিয়ে কিছু বলা সম্ভব নয়।”

এর মানে এই যে, প্রশান্ত কিশোর উত্তর প্রদেশ সহ পাঁচ রাজ্যের আগামী বিধানসভা নির্বাচনে কোনও ভূমিকা পালনে ইচ্ছুক নন। সূত্র জানিয়েছে, ‘ওনার এই দীর্ঘ ছুটি মার্চ ২০২২-র পরেও জারি থাকবে কি না, সেটা বলা যাচ্ছে না।”