Press "Enter" to skip to content

সাংস্কৃতিক মঞ্চে থাকবে দেবী সরস্বতীর মূর্তি, ক্ষোভে অ্যাওয়ার্ড নিলেন না কবি

নাগপুরঃ মহারাষ্ট্রের নাগপুরে এক মরাঠি করবি সন্মান সমারোহ’র মছে দেবী সরস্বতীর মূর্তি থাকার জন্য অ্যাওয়ার্ড নেবেন না বলে জানিয়ে দেন। মারাঠি সাহিত্য কবি যশবন্ত মনোহর বলেন, যেহেতু অনুষ্ঠানের আয়োজকরা ওনার আপত্তির পরেও মঞ্চে দেবী সরস্বতীর মূর্তি রেখেছেন, এই কারণে তিনি অ্যাওয়ার্ড নেবেন না। যশবন্ত এও বলেন যে, এর আগেও তিনি একই কারণে অনেক অ্যাওয়ার্ড নেন নি।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রের সাহিত্য সংস্থা বিদর্ভ সাহিত্য সঙ্ঘ যশবন্ত মনোহরকে লাইফ টাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে যশবন্ত মনোহরকে সন্মান জানাত সংস্থা। এই অনুষ্ঠান ১৪ জানুয়ারি আয়োজিত হয়েছিল। সংস্থার তরফ থেকে মনোহরকে আমন্ত্রণ করার পর ওনাকে জানানো হয় যে, অনুষ্ঠানে দেবী সরস্বতীত পুজো করা হবে।

মনোহর দেবী সরস্বতীর পুজোতে আপত্তি জাহির করে বলেন, ‘দেবী সরস্বতীর মূর্তি সেই শোষণ মানসিকতার প্রতীক, যেখানে মহিলা আর শূদ্রদের জ্ঞান প্রাপ্ত করার থেকে দূরে রাখে।” যদিও আয়োজকরা ওনার দাবি স্বীকার করবে না বলে জানায়, আর এও জানায় যে অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা বদলানো হবে না। এরপর যশবন্ত মনোহর অনুষ্ঠানে অংশ নেন নি আর। তবে তিনি আয়োজকদের একটি খোলা চিঠি লেখেন।

মারাঠিতে লেখা ওই চিঠিতে যশবন্ত লেখেন, ‘আমি আশা করেছিলাম যে বিদর্ভ সাহিত্য সঙ্ঘ আমার বিচার আর সিদ্ধান্ত নিয়ে ভাববে আর তাঁদের অনুষ্ঠানে কিছু বদল আনবে। কিন্তু আধিকারিকরা আমাকে জানিয়ে দেন যে, মঞ্চে দেবী সরস্বতীর মূর্তি থাকবেই। আমি এই কারণে অনেক সন্মান আর পুরস্কার ছেড়ে দিয়েছি। আমি সাহিত্যে ধর্মের দখল স্বীকার করতে পারব না, আর এই কারণে আমি এই সন্মাকে স্বীকার করলাম না।”