Press "Enter" to skip to content

সারেন্ডারের মুডে আফগানিস্তানের সরকার! ইস্তফা দিতে পারেন রাষ্ট্রপতি আশরাফ গনি


আফগানিস্তানে লাগাতার নিজের আধিপত্য বিস্তার করছে। এর দরুন আশরাফ গনি সরকার রীতিমতো চাপে রয়েছে। আফগানিস্তানের ৬০% এর বেশি জমির উপর তালিবান কবজা করেছে। পরিস্থিতি এতটাই ভয়ানক রূপ নিয়েছে যে আশরাফ গনি সরকার সারেন্ডারের মুডে আসতে বাধ্য হয়েছে।

খবর এও আসছে যে রাষ্ট্রপতি আশরাফ গনি নিজের পদ থেকে দিতে পারেন। আফগানিস্তানের মিডিয়ায় ও আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় তরফে এমন দাবি করা হয়েছে। আফগানিস্তানে আরো একবার শাসন লাগু হওয়ার সম্ভবনা দেখা যাচ্ছে বলে মনে করে হচ্ছে। এর কারণ তালিবানের কাছে আফগান সেনা প্রায় হাঁটু গেঁড়ে ফেলেছে। জানিয়ে দি, তালিবান শাসনে নাগরিকদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠে। বিশেষ করে মেয়েদের জন্য তালিবানি শাসন খুবই ভয়ঙ্কর।

আফগানিস্তানের দ্বিতীয় সবথেকে বড়ো শহর কান্দাহার দখলে নিয়েছে তালিবান। এরপর তালিবানের এক প্রবক্তা বলেছেন, “কান্দাহার পুরোপুরি আমাদের দখলে চলে এসেছে। মুজাহিদ্দিনরা শহরের শহীদ চোকে পৌঁছে গেছে।” তালিবানের বার্তা ও আফগানিস্তানের সরকারের মুড দেখে একটা বিষয় আন্দাজ করা যাচ্ছে যে আফগানিস্তানে শেষমেষ তালিবান শাসন আসার পূর্ন শঙ্কা রয়েছে।

এক আমেরিকান বলেছেন, তালিবান ৩০ থেকে ৯০ দিনের মধ্যে কবুল দখল করে নেবে। তালিবানের এই আতঙ্কের মধ্যে আফগানিস্তানের রাশিদ খান বিশ্বের নেতাদের কাছে নিজের দেশের জন্য সাহায্য চেয়েছেন।

কান্দাহারে তালিবানের কবজার পর আমেরিকা ঘোষণা করেছে যে কাবুলে আমেরিকা দূতাবাসের কর্মচারীদের ফিরিয়ে আনতে তারা সৈনিক প্রেরণ করবে। ব্রিটেনেও তাদের দূতাবাসের কর্মীদের ফিরিয়ে আনতে সৈনিক পাঠানোর কথা বলেছে।