Press "Enter" to skip to content

সালমানকে ‘নিকাহ” করতে ধর্ম নাম সবই ছেড়েছিল হিন্দু যুবতী, ৪ মাস পর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

নয়া দিল্লীঃ েঙ্গানার কমররেড্ডি জেলায় মুসলিম প্রেমিককে করার জন্য কবুল করা হিন্দু যুবতী আত্মহত্যা করেছে। কয়েকমাস আগেই তাঁর নিকাহ হয়েছিল মুসলিম বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে। নিউজ ১৮ তেলেগু অনুযায়ী, নামের মুসলিম যুবকের সঙ্গে বিয়ে করার জন্য শ্রবন্তী নামের হিন্দু যুবতী পালটে নিজের নাম শেখ সমীরা করে। এরপর গত ২৪ মে শেখ সমীরার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় তাঁর ঘরেই।

যুবতীর পরিজনেরা গোটা ঘটনার পিছনে সালমান আর তাঁর পরিবারের হাত আছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছে। শ্রবন্তীর পরিজনেরা বলেন, সালমান আর তাঁর চাচা এবং চাচি তাঁদের মেয়ের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত আর তাঁদের করা উচিৎ। ুনিপল্লী পুলিশ মামলা দায়ের করেছে আর তদন্ত চালাচ্ছে।

কমররেড্ডি জেলার ইন্দিরা নগরের িন্দা ১৯ বছর বয়সী শ্রবন্তী ৭ জানুয়ারি ২০২১-এ সালমানের সঙ্গে নিকাহ করে। এই নিকাহর জন্য শ্রবন্তী নিজের ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম কবুল করে নিজের নাম শেখ সমীরা রাখে।

২৪ মে নিজের ঘরেই শ্রবন্তীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। শ্রবন্তীর দেহ দেখে তাঁর পরিজনেরা বলেন যে, তাঁর শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। তাঁদের অভিযোগ, সালমানরা তাঁদের মেয়েকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। শ্রবন্তীর পরিবার সালমানের পরিবারের বিরুদ্ধে শ্রবন্তীকে মানসিক আর শারীরিক দিক থেকে অত্যাচার করার জন্য করা শাস্তির আবেদন জানিয়েছে।