Press "Enter" to skip to content

সিসিটিভি বন্ধ করে ICU তে ভর্তি নাবালিকাকে ৫০ মিনিট ধরে ধর্ষণ ওয়ার্ড বয় কাসিমের

মেরঠঃ উত্তর প্রদেশের মেরঠ জেলার একটি হাসপাতালের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঘুমের ইনজেকশন দিয়ে ওই ওয়ার্ড বয় ICU তে ভর্তি যুবতীকে ধর্ষণ করেছে বলে জানা গিয়েছে। অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে থানায় FIR দায়ের করা হয়েছে। উত্তর প্রদেশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। অভিযুক্ত কাসিম মেরঠের খরখোদার ঘোসীপুর গ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে।

১৮ বছর বয়সী নির্যাতিতা মজিদনগরের বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। জ্বর আসার পর ওই যুবতীকে হাপুড় রোডের একটি কেয়ার নার্সিং হোমে ভর্তি করানো হয়েছিল। যুবতী অভিযোগ করে বলেছে যে, ভোররাত ৩টে াদ অভিযুক্ত কাসিম তাঁকে ধর্ষণ করেছে। যুবতী আরও জানিয়েছে যে, কাসিম থাকে হুমকি দিয়ে বলেছিল যে, সে যদি এই ঘটনার কথা কাউকে বলে, তাহলে তাঁকে বিষ ইনজেকশন দিয়ে মেরে ফেলবে। ২৯ মে ওই যুবতীকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়।

নির্যাতিতা বাড়ি যাওয়ার পর পরিবারের সবাইকে এই বিষয়ে জানায়। এরপর যুবতী পরিজনদের সঙ্গে গিয়ে লিসাড়ি গেট থানায় অভিযোগ দায়ের করে। যুবতীর অভিযোগের পর পুলিশ অভিযুক্ত কাসিমকে গ্রেফতার করে। পুলিশ হাসপাতালের CCTV তদন্ত করতে গিয়ে দেখতে পায় যে, ভোর তিনটে নাগাদ অভিযুক্ত ওয়ার্ড বয় আইসিউতে ভর্তি যুবতীর সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তি করছিল। এরপর প্রায় ৪০ মিনিট সিসিটিভি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

https://platform.twitter.com/widgets.js

পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ উদ্ধার করে। আশঙ্কা জাহির করা হচ্ছে যে, ধর্ষক নিজের কুকীর্তি লোকানোর জন্য সিসিটিভি বন্ধ করে দিয়েছিল। থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর অভিযুক্ত পক্ষের কয়েকজন নির্যাতিতার পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করার চেষ্টা চালায়। CO অমিত রায় বলেন, মামলার তদন্ত চলছে। দোষী প্রমাণিত হলে অভিযুক্তকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। নির্যাতিতা জানিয়েছে যে, তাঁকে ধর্ষণ করার আগে ঘুমের ইনজেকশন দিয়েছিল অভিযুক্ত।