Press "Enter" to skip to content

সোমবার পর্যন্তই নিজের পদে বহাল আছেন কেপি শর্মা ওলি, তারপরেই পদত্যাগ!


কাঠমান্ডুঃ ের () কমিউনিস্ট পার্টির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক আজ স্থগিত করা হয়েছে। এই বৈঠকে নেপালি প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির () ভাগ্য নির্ধারণ হত। প্রধানমন্ত্রী ওলির মিডিয়া সচিব সূর্য থাপা বলেন, আজকের হওয়া বৈঠক স্থগিত হয়েছে আর এই বৈঠক আগামী সোমবার হবে। কারণ নেপালের কমিউনিস্ট দলের নেতারা এই বিষয়ে আরও একটু ভাবতে চান।

প্রচণ্ড

উল্লেখ্য, ভারত বিরোধিতা করে বিপাকে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির পদ বিপাকে আছে। নেপালি প্রধানমন্ত্রীর পদ খোয়ানো প্রায় নিশ্চিত। ক্ষমতায় থাকা নেপালের কমিউনিস্ট পার্টির স্থাই সমিতির ৪০ জনের মধ্যে ৩৩ জন নেতাই প্রধানমন্ত্রী ওলির ইস্তফা চাইছেন।

মিডিয়াতে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী ওলি বিক্ষুব্ধ নেতাদের প্রসন্ন করতে ওনাদের বাড়ি পর্যন্ত গেছিলেন। আরেকদিকে, প্রধান বিরোধী নেতা পুষ্প কমল দহল প্রচণ্ডের সাথে নিজের আবাসেই তিনঘণ্টা সাক্ষাৎ করেন। দলের বেশীরভাগ নেতাই প্রচণ্ডের সমর্থনে আছেন। করোনার পরিস্থিতি কাবু না করতে পারার মামলায় ওলি আগে থেকেই সবার নিশানায় আছেন। এরপর আবার গোদের উপর বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে ভারত বিরোধিতা। এমনকি প্রধানমন্ত্রী ওলি ভারতের দিকে সরাসরি আঙুল তুলে বলেছেন যে, দিল্লী আমাকে খমতাচ্যুত করতে চাইছে।

কাঠমান্ডু পোস্ট অনুযায়ী, ওলি দলের বড় নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ করে সমর্থন চেয়েছেন। অনেক নেতার বাড়ি আর অফিস পর্যন্তও গেছেন তিনি। দলের কার্যকারী সভাপতি প্রচণ্ডের সাথে ওলি নিজের আবাসে তিনঘণ্টা বৈঠক করেন। প্রাপ্ত সুত্র অনুযায়ী, এই বৈঠকের পরেও কোন সুরাহা হয়নি।