Press "Enter" to skip to content

স্বপ্ন ছিল স্বাধীনতা দিবসে নিজের তৈরি হেলিকপ্টার উড়াবে! টেস্টিংয়ের সময় ব্লেডের আঘাতে হলো সব শেষ

মনে মনে স্বপ্ন ছিল ের দিন দেশবাসীর সামনে তুলে ধরবে নিজের আবিষ্কার। নিজের হাতে তৈরি হেলিকপ্টার (helicopter) আকাশে উড়িয়ে, দেশবাসীকে তাক লাগিয়ে েন। কিন্তু স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল, নিজের তৈরি হেলিকপ্টারের ব্লেডেই গলা কেটে মারা গেলেন মহারাষ্ট্রের স্কুলছুট ফুলসাওয়াঙ্গির ইসমাইল শেখ।

মহারাষ্ট্রের জেলার ২৪ বছর বয়সী ইসমাইল শেখ, অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশুনা করেছেন। আর্থিক অনটনের মধ্যে, পড়াশোনা করতে পারেনি ইসমাইল শেখ। পড়াশোনা মাঝপথে ছেড়ে দিয়ে কাজ করতো ভাই মুসাভিরের ওয়েল্ডিংয়ের দোকানে।ওই দোকানেই গৃহস্থের নানা আসবাবপত্র তৈরির কাজ শিখতে শিখতে নতুন কিছু আবিষ্কার করতে চেয়েছিল।

তার ইচ্ছা ছিল নিজের হাতে হেলিকপ্টার বানিয়ে তাক লাগিয়ে দেবে।সেইমত গত দুবছর ধরে ইউটিউবে নানারকম ভিডিও দেখে, মারুতি ৮০০ গাড়ির ইঞ্জিনজুড়ে তৈরি করে একটি হেলিকপ্টার। নিজের নামেই নাম দেওয়া হয়েছিল, মুন্না হেলিকপ্টার। স্বপ্ন ছিল, স্বাধীনতা দিবসের দিন দেশবাসীকে উপহার দেবে নিজের আবিষ্কার।

Helicopter

ভাগ্যের পরিহাসে সেই অপূর্ণ রয়ে গেল ইসমাইলের। স্বাধীনতা দিবসে আগে মঙ্গলবার রাতে হেলিকপ্টার পরীক্ষা নিরীক্ষা করছিল ইসমাইল। গ্ের অনেক মানুষের ভিড় জমেছিল সেখানে। হঠাৎ করে হেলিকপ্টারের টেল রোটেটর ইসমাইলের পোশাকে আটকে যায় করে এবং পাখার ব্লেড ভেঙে গিয়ে ইসমাইলের গলায় গুরুতর আঘাত লাগে।

সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। নিজের আবিষ্কার তুলে ধরার স্বপ্ন ইসমাইলের চিরদিনের মতো শেষ হয়ে যায়। দুর্ঘটনায় শোকের ছায়া নেমেছে গোটা গ্রামে।