Press "Enter" to skip to content

স্বাধীনতা দিবসের আগে ভারতীয়দের বড়ো উপহার দেবে ইসরো! চোখ ছানাবড়া হলো চীনাদের

স্বাধীনতা দিবসের আগে ১২ আগস্ট ভারতীয়দের কাছে বড়ো খবর আসার সম্ভাবনা রয়েছে। টিম ওই দিন ে এমন উপগ্রহ স্থাপন করবে যা ভারতের চোখ, কান হিসেবে কাজ করবে। এই স্যাটেলাইটের দরুন ভারতের শক্তি বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে। ১২ ই আগস্ট ISRO মহাকাশে GISAT-1 স্যাটেলাইট প্রেরণ করবে, যা মূলত মনিটরিং করার কাজ করবে।

এই স্যাটেলাইটকে দেশের বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ দুই কাজে ব্যবহার করা যাবে। উদাহরণস্বরূপ, লাদাখ সীমান্তে চীনের সেনা কোনো উপদ্রব করার চেষ্টা করলে তার স্পষ্ট ছবি এই স্যাটেলাইট তুলে আনবে। একই সাথে কোথাও দাবানল সৃষ্টি হলে, সমুদ্রের মাঝে কোথাও দুর্ঘটনা ঘটলেও এই স্যাটেলাইটের সাহায্য ঘটনার পর্যবেক্ষণ করা সহজ হবে।

GSLV MK2 দ্বারা এই স্যাটেলাইট লঞ্চ করা হবে বলে জানা গেছে। ISRO প্রমুখ কে সিভান জানিয়েছেন, ১২ আগস্ট এই স্যাটেলাইট লঞ্চ করা হবে। যদিও সেটা অফিসিয়াল ডেট নয় বলেও জানিয়েছেন তিনি। অবশ্য, সবকিছু ঠিক থাকলে ১২ আগস্ট ভারত মহাকাশে নিজের জেমস বন্ড নিযুক্ত করবে। জেমস বন্ড অর্থাৎ GSAT-1 স্যাটেলাইট, এটা এমন এক উপগ্রহ যা মহাকাশে থেকে ভারতের চোখ ও কান হিসেবে কাজ করবে। এর আগে ২ বার GSAT-1 লঞ্চ করার চেষ্টা হয়েছে। তবে বিশেষ কারণের জন্য দুবারই লঞ্চ করা সম্ভব হয়নি।

২০১৯ সালে চীন নিজের গোয়েন্দা স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠিয়েছে। চীন ২০১৯ সালে গাওফেন-7 স্যাটেলাইট পাঠিয়েছিল, যা মহাকাশ থেকে পৃথিবীর যে কোনো স্থানের উপর নজর রাখতে সক্ষম। চাইনিজ মিডিয়ার দাবি, গাওফেন-7 স্যাটেলাইট ওই শ্রেণীর সবথেকে উন্নত স্যাটেলাইট। গাওফেন-7 স্যাটেলাইট লঞ্চের সময় বিশ্বের অনেক দেশ আপত্তি প্রকাশ করেছিল এবং চীনের আগ্রাসন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল।

সেই সময় চীন সমস্ত দেশের দাবি খারিজ করে অন্য যুক্তি দিয়েছিল। চীনের মতে গাওফেন-7 স্যাটেলাইট কোনো দেশের গোয়েন্দাগিরি করার জন্য ব্যাবহার করা যাবে না। এটা শুধুমাত্র ম্যাপিং ও জমি সংক্রান্ত কাজে ব্যবহার করা হবে। অনেকে দাবি করেন, লাদাখ সীমান্তে গাওফেন-7 স্যাটেলাইট ব্যাবহার করে চীন নজর রাখছে এবং সেনাবাহিনীকে ওই সমস্ত ছবি প্রেরণ করেছে।

চীনের চালকে মাত দিতে ভারত ২০২০ সালেই GSAT-1 লঞ্চ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তবে তা সেই সময় তা হয়ে উঠেনি। পুরো সিস্টেম ও স্যাটেলাইট তৈরি থাকলেও ISRO তে আসা একটা ফোন কল এই স্যাটেলাইট লঞ্চ আটকে দেয়।

অবশ্য সেই ফোন কল কে করেছিল, ফোন কলে কি কথা বলা হয়েছিল তাও সার্বজনিক করা হয়নি। জানিয়ে দি, GSAT স্যাটেলাইট খুবই শক্তিশালী উপগ্রহ। যা মাটিতে পড়ে থাকা একটা কয়েনের ছবিও স্পষ্ট তুলে আনতে সক্ষম। এমতো অবস্থায় স্বাধীনতা দিবসের আগে ভারত GSAT-1 লঞ্চ করতে পারলে তা ভারতের জন্য এক বিরাট জয় বলে গণ্য হবে।