Press "Enter" to skip to content

স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে এমন হিংসা কখনও দেখা যায়নি! শাহী বৈঠকের পর তোপ রাজ্যপালের


নয়া ঃ শুক্রবার কলকাতায় ফেরার কথা ছিল, কিন্তু ফেরেন নি জগদীপ ধনখড়। বাংলায় ফেরার বদলে অমিত শাহের সঙ্গে আরও একটি বৈঠক করেন তিনি। আর এই বৈঠকে আবারও বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে সরব হন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। দিল্লী ছাড়ার আগে তিনি বলেন, ‘বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে সংবিধান, গণতন্ত্র আর আইনশৃঙ্খলার উপর বিশ্বাস রাখাটা খুব জরুরি।”

মঙ্গলবার দিল্লী সফরে যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন জগদীপ ধনখড়। এরপর শুক্রবার ওনার বাংলায় ফিরে আসার কথা ছিল। কিন্তু তা হয়নি। আচমকা ওনার সফরসূচি বদলে যায়। এরপর শনিবার তিনি নিজে একটি টুইট করে জানান যে, সকাল ১১টা নাগাদ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে তাঁর বৈঠক রয়েছে।

বাংলায় বারবার ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে বারবার সরব হওয়া রাজ্যপালের আচমকাই দিল্লী সফর জল্পনার সৃষ্টি করেছিল। আর সেই জল্পনা উস্কে দিয়ে তিনি একাধিক , রাষ্ট্রপতি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দুবার সাক্ষাৎ করেন তিনি। শনিবার অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রাজ্যপাল বলেন, ‘বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসায় বহু মানুষ আক্রান্ত। এখনও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি। অনেকে এখনও ঘরছাড়া। যারা বাড়িতে ফিরছেন, তাঁদেরও টাকা দিয়ে ফিরতে হচ্ছে। স্বাধীনতার পর এমন ভোট পরবর্তী হিংসা আর কোথাও দেখা যায়নি।”

দিল্লী ছাড়ার আগে যেমন রাজ্য সরকারকে বিঁধলেন তিনি। দিল্লীতে যাওয়ার আগেও ঠিক একই ভাবে রাজ্য সরকারকে নিশানা করে গিয়েছিলেন তিনি। ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া চিঠিও দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। ওয়াকিবহাল মহলের মতে রাজ্যপাল বাংলার হিংসা এবং আইনশৃঙ্খলা নিয়ে রিপোর্ট দিতেই আচমকাই দিল্লী উড়ে গিয়েছিলেন।