Press "Enter" to skip to content

হাউস অ্যারেস্ট ফিরহাদের বাড়ির বাইরে সিসিটিভি ক্যামেরা লাগাচ্ছে সিবিআই



 হাইকোর্টে আজ নারদা মামলা শুনানি ছিল। শুনানির শুরু হওয়ার পর থেকে অভিযুক্ত চার হেভিওয়েট নেতা , সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জামিন নিয়ে দুই বিচারকের মধ্যে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়। ফলে আজ চার জন ছাড়া পেলেও তাঁদের মামলার পরবর্তী শুনানি না হওয়া পর্যন্ত গৃহবন্দি হয়েই থাকতে হবে। মামলার শুনানির জন্য হাইকোর্টে পাঁচ বিচারপতির একটি বৃহত্তর বেঞ্চ গঠন করা হয়েছে।

চারজনের মধ্যে শুধু ফিরহাদ হাকিমই আজ জেল ছেড়ে বাড়ি ফিরেছেন। বাকি তিন নেতা এখনও এসএসকেএম-এ চিকিৎসাধীন। তবে ফিরহাদ বাড়ি ফিরতেই নতুন তৎপরতা শুরু করেছে। নেতাকে সারাদিন চোখে চোখে রাখতে বাড়ির বাইরে বসানো হচ্ছে সিসিটিভি। বাড়িতে কে আসছেন, ফিরহাদ হাকিম বাড়ি ছেড়ে যাচ্ছেন কি না, সেটা দেখার জন্যই এই বন্দোবস্ত করা হচ্ছে সিবিআই-এর তরফ থেকে।

শুক্রবার সকাল সোয়া এগারোটা থেকে শুরু হয় নারদা মামলার শুনানি। হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত বিচারপতি রাজেশ বিন্দল এবং অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি শুরু হয়। দুই বিচারপতির মধ্যে অন্তবর্তী জামিন নিয়ে মতভেদও হয়। অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জামিন মঞ্জুর করলেও রাজেশ বিন্দল জামিনের বিরোধিতা করেন। জামিন মঞ্জুর নিয়ে জটিলতা শুরু হয়েছে। তাই আপাতত জেল হেফাজত থেকে মুক্তি পেলেও হাউস অ্যারেস্টেই থাকতে হবে চার নেতাকে। আগামী সোমবার হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হবে।