Press "Enter" to skip to content

হাওড়ায় ৭ বছরের বাচ্চাকে ধর্ষণ করল এলাকায় তাবিজ বিক্রি করা শেখ সালেম, পুলিশ আসার আগেই চম্পট


ডোমজুড়ঃএক অমানবীয় ঘটনার সাক্ষী হয়ে রইল হাওড়ার ডোমজুড়। সেখানে চকলেটের লোভ দেখিয়ে সাত বছরের এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী এক ের বিরুদ্ধে। এই ঘটনার পর গোটা এলাকা উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। উত্তেজিত জনতা অভিযুক্ত বৃদ্ধের বাড়ি আর ে ব্যাপক ভাঙচুরও চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন হয়েছে।

ডোমজুড়ের িন্দা শেখ সালেম (৬৫) দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় মাদুলি আর তাবিজ বিক্রি করত। গত শুক্রবার সে নিজের দোকানে থাকাকালীন প্রতিবেশী শিশু কন্যাকে ডেকে নেয়। এরপর তাঁকে চকলেটের লোভ দেখিয়ে নিজের দোকানের ভিতরেই ধর্ষণ করে। শেখ সালেম ওরফে সালেম বাবার পাশবিক অত্যাচারের পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে শিশু কন্যা।

নির্যাতিতা অসুস্থ হয়ে পড়ার পর তাঁকে ডোমজুড় ে ভর্তি করেন অভিভাবকরা। সেখানেই পরীক্ষা করার পর জানা যায় যে, তাঁর সঙ্গে কী হয়েছে। এরপরই নির্যাতিতার বাবা-মা বাঁকড়া পুলিশ আউটপোস্টে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষেপে ওঠে স্থানীয় জনতা। তাঁরা দলবেঁধে অভিযুক্ত সালেম বাবার দোকান ও বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। অবস্থা বেগতিক দেখে সেখান থেকে সপরিবারে চম্পট দেয় শেখ সালেম। পুলিশ অভিযুক্তর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে। স্থানীয়রা তাবিজ বিক্রেতা শেখ সালেমের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছে। জানা গিয়েছে যে, সালেম বাবা এর আগেও অনেক অপকর্মতে অভিযুক্ত ছিল।