Press "Enter" to skip to content

হাওয়াই হামলার পর গেরিলা যুদ্ধের প্রস্তুতি ইজরায়েলের, ডাকা হল ৭ হাজার রিজার্ভ সৈন্যকে



নয়া দিল্লীঃ প্যালেস্তাইন জঙ্গি সংগঠন হামাস দ্বারা যুদ্ধবিরতির দাবি নস্যাৎ করে ইজরায়েল এখন গ্রাউন্ড লেভেলেও অ্যাকশনে নেমেছে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ইজরায়েলের তরফ থেকে এতদিন শুধু করে গাজাকে জবাব দেওয়া হচ্ছিল, আর এখন তাঁরা গ্রাউন্ড সিকিউরটি মজবুত করার কাজে লেগেছে। গাজা সীমান্তে সেনার ২টি ব্যাটেলিয়নের পাশে একটি আর্মড ব্যাটেলিয়নও মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়াও ৭ হাজার রিজার্ভ সৈনিককে কাজে ফেরার জন্য ডাকা হয়েছে। সীমান্তের আশেপাশের গ্রামের বাসিন্দাদের বাঙ্কারে যাওয়ার নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

ইজরায়েলি ডিফেন্স ফোর্স (Israel Defense Forces) টুইট করে এখনও পর্যন্ত গাজায় করা অ্যাটাকের পরিসংখ্যান জারি করেছে। তাঁরা এও জানিয়েছে যে, ইজরায়েলে মৃতের সংখ্যা কম মানে এই নয় যে গাজা হামলা করেনি। এর মানে এই যে, আমরা আমাদের মানুষের রক্ষা করতে সমর্থ হয়েছি।

https://platform.twitter.com/widgets.js

IDF অনুযায়ী, গাজা ইজরায়েলের উপর ১ হাজার ৭৫০ টি রকেট হামলা করেছে। গাজার এই হামলায় ৭ জন ইজরায়েলি নাগরিক প্রাণ হারিয়েছে আর ৫২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। হামাস ইজরায়েলের স্কুল, আর নাগরিকদের বাড়িঘর নিশানা করেছে। আর এর জবাবে IDF হামাসের কন্ট্রোল সেন্টার বলে পরিচিত একটি বহুতল বিল্ডিং ধ্বংস করেছে।

এর আগে ইজরায়েল হামাসের সেই ১৪ জন কম্যান্ডারের লিস্ট জারি করে, যারা কদিন ধরে ইজরায়েলের সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ইজরায়েল এও জানিয়েছে যে, এদের মধ্যে কেউই আর আমাদের সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াবে না। কারণ ইজরায়েলের এদের সবাইকে নিকেশ করেছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ইজরায়েল যেই কম্যান্ডারদের নিকেশ করেছে, তাঁদের ছবিও জারি করেছে। তাঁরা বলেছে, হামাসের এই কম্যান্ডাররা ইজরায়েলের আর কোনও ক্ষতি করতে পারবে না। কারণ ইজরায়েলের এয়ার ডিফেন্স এদের নিকেশ করে দিয়েছে। এরই মধ্যে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রালয় জানিয়েছে যে, সেখানে ১৬ টি বাচ্চা আর পাঁচ মহিলা সমেত ৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এবং ৮৬ বাচ্চা আর ৩৯ মহিলা সমেত ৩৬৫ জন আহত হয়েছে।