Press "Enter" to skip to content

হামাসের হামলায় নিহত ভারতীয় মহিলা, আরেকদিকে ভারতে উঠছে ইজরায়েলকে বয়কট করার দাবি



নয়া জেরুসালেমের আল আকসা মসজিদে জুম্মার নিয়ে শুরু হওয়া বিতর্ক এখন বড়সড় সংঘর্ষের আকার নিয়েছে। আর প্যালেস্তাইনের মধ্যে এখন যুদ্ধের মতো পরিস্থিতি। ২০১৪-র পর প্রথমবার এরকম সংঘর্ষ দেখা গিয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ফিলিস্তিনি ইজরায়েলের অনেক শহরে শয়ে শয়ে রকেট হামলা করে। বলে দিই, প্যালেস্তাইনের ‘হামাস” কে ইজরায়েল সমেত অনেক দেশই জঙ্গি তালিকাভুক্ত করেছে।

ইজরায়েলে হামাসের রকেট হামলার সংখ্যা নিয়ে নানান দাবি উঠেছে। রয়টার্সের রিপোর্ট বলা হয়েছে যে, ৪৮০ টি রকেট ছিল। আবার কিছু রিপোর্টে ৩০০ এবং ২০০ ও বলা হচ্ছে। যদিও প্যালেস্তাইনের গাজা পট্টি থেকে হামলা করা অধিকাংশ রকেটই হাওয়ায় নষ্ট করে দেয় ইজরায়েলের এয়ার ডিফেন্স।

হামাসের এই অতর্কিত হামলায় ভারতীয় সৌম্যা সন্তোষ-এর মৃত্যু হয়েছে। তিনি এক বাড়িতে কেয়ার টেকারের কাজ করতেন। এখনও পর্যন্ত এই হামলায় ৩৫ জনের মতো মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। যার মধ্যে ৩২ জন ফিলিস্তিনি আর ৩ জন ইজরায়েলের বাসিন্দা।

হামাসের হামলার জবাবে ইজরায়েলও পাল্টা হানা দেয়। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী ২০০-র বেশি রকেট হামলা করেছে ইজরায়েলও। গাজা পট্টির একাধিক বিল্ডিং ভেঙে তছনছ হয়ে গিয়েছে আর হামাসের একাধিক জঙ্গি নিকেশ হয়েছে।

ইজরায়েল আর প্যালেস্তাইনের মধ্যে এই সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর থেকেই এবং বুদ্ধিজীবীরা ইজরায়েলের প্রোডাক্ট বয়কট করার দাবি তুলেছে। যদিও, জঙ্গি সংগঠন হামাসের হানায় ভারতীয় মহিলার মৃত্যু নিয়ে তাঁদের কোনও কিছু বলতে শোনা যায় নি এখনও।