Press "Enter" to skip to content

হেরে যাওয়ার পর শুধরাল ব্রিটেনের লেবার পার্টি! এবার কাশ্মীর নিয়ে করল পাকিস্তানের সঙ্গ ত্যাগ


নয়া দিল্লীঃ কাশ্মীর (Kashmir) আরও একটি বড় কূটনৈতিক জয় হাসিল করে নিলো ভারত ()। ব্রিটেনের (labour Party) কাশ্মীর ইস্যুতে নিজেদের মনোভাব বদলে দিলো। লেবার পার্টির নব নিযুক্ত নেতা কিয়ের স্টার্মার (Keir Starmer) জানান, কাশ্মীর ভারত আর পাকিস্তানের (Pakistan) দ্বিপাক্ষিক মামলা।

স্টার্মার বৃহস্পতিবার লেবার ফ্রেন্ডস অফ ইন্ডিয়া (LFIN) এর একটি টিমের সাথে সাক্ষাৎ করার পর বলেন, আমরা এশিয়ার ইস্যু গুলোর কারণে এখনাকার মানুষদের বিভাজিত হতে দেবো না। ভারতের কোন সাংবিধানিক ইস্যু, ভারতীয় সংসদের ইস্যু আর কাশ্মীর মামলায় ভারত এবং পাকিস্তান শান্তিপূর্ণ ভাবে মিটিয়ে নিক। উল্লেখ্য, ব্রিটেনে ভারতীয় আর বংশভূতের সংখ্যা প্রচুর আর এই দুই দেশের মানুষই সেখানকার রাজনীতিতে বড় যোগদান করে।

লেবার পার্টির নব নিযুক্ত নেতা স্টার্মার কাশ্মীর ইস্যুতে নিজেদের প্রাক্তন নেতা জেরেমি কর্বিনের নীতি থেকে দলকে দূরে রাখেন। জেরেমি কাশ্মীরে মানবতার বড় সঙ্কট চলছে জানিয়ে একটি এমার্জেন্সি প্রস্তাব পাস করিয়েছিলেন। এরপর ব্রিটেনে ১৫ লক্ষ ভারতীয় বংশভূতরা জেরেমির তীব্র সমালোচনা করেছিল। এর ফল স্বরুপ ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনে হারের মুখ দেখতে হয় লেবার পার্টিকে।

কর্বিন ২০১৯ এ কাশ্মীর নিয়ে ট্যুইট করেছিলেন, সেখানে তিনি নিজের মনোভাব স্পষ্ট ব্যাক্ত করেছিলেন। উনি লিখেছিলেন, কাশ্মীরের বর্তমান পরস্থিতি দুঃখজনক। কাশ্মীর মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে, এটা কোনভাবেই আমরা মেনে নিতে পারব না। কাশ্মীরবাসীদের অধিকারের সন্মান হওয়া উচিৎ, আর সংযুক্ত রাষ্ট্রে কাশ্মীর ইস্যুতে প্রস্তাব পাশ হওয়া দরকার।